পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/২০২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া। Y S > স্তে মন শব্দ কর্ণগোচর হইল না । সেই ভয়জনক শৰু শুনিবার সময়ে বা কি ভয় হইতেছিল, নিস্তব্ধভাবে সেই ভয় শতগুণে বৃদ্ধি পাইতে লাগিল । আমরা ক্রমাগত কেবল অগ্রসর হইয়াই যাইতে লাগিলাম, কিন্তু তখন এমন ক্ষমতা ছিল না যে মুখ দিয়া কোন কথা নির্গত করি । সুতরাং কাহাকেও কিছু বলিব তাহাও পারিতেছিলাম না। যাহা হউক, প্রায় দুই প্রহর রাত্রি হয়২ এমত সময়ে আমরা উপকুলে স্বর্ণরেণুতে গিয়া উত্তীর্ণ হইলাম, দেখিলাম সমুদ্রের তরঙ্গ সকল অতি ভয়ানক ছ২ শব্দে ভাঙ্গিয়৷ আ সিতেছে, ও তাহার ধবল ফেননিচয়ে শৈলরাশি ও সৈকতভূমি সকল আচ্ছন্ন হইতেছে। ক্ষণকাল বিলম্বে বনের ফাক দিয়া দেখতে পাইলাম, কিয়দূর অন্তরে একটা আগুনের কুণ্ড জ্বালিয়া তাহার চারিদিকে কতকগুলি লোক বসিয়া রহিয়াছে । দেখিবা মাত্র বোধ হইল উহারা তথায় রাত্রি প্রভাত হওয়া পর্য্যন্ত অবস্থিতি করিৰেক । এইরূপ ভাবিয়া আমরা তাহাদের নিকটে গিয়া উপবিষ্ট হইলাম । শুনিলাম তাহাদের একজন সকলকে সম্বোধন করিয়া কহিতেছে “ ভাই সকল ! আমি আজি সন্ধ্যাকালে দেখিয়াছি একখানা জাহাজ ভাসিতে ২ এই উপদ্বীপের অভিমুখে আসিতেছিল । পরে অত্যন্ত অন্ধকার হওয়াতে আর তাহা, দেখিতে পাইলাম না । স্বৰ্য্য অস্ত হইবার ঘণ্টাছুই পরে তাহাতে অমঙ্গলস্থচক গোটাকত তোপের শব্দও হইয়াছিল । শব্দ শুনিতে পাইলাম ; কিন্তু পাইলে কি হইবে, তখন