পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/২৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


マミc পাল ও বর্জিনিয়া । যায়, তাহার সাহায্য করিবার সময়ে যে সকল কষ্ট সহ করিতে হয়, তাহাতে কেবল পরস্পরের প্রেমই সমুন্নতি প্রাপ্ত হইতে পারে। প্রাচীনের কতেন, দুই জনে একসঙ্গে ক্লেশ ভোগ করলে পরস্পরের দয়া ধৰ্ম্মই বৃদ্ধি হয় । এসব কথা সত্য বটে, কিন্তু এখন আর সে ভাবনায় ফল নাই । কারণ বজ্জিনিয়া বঁচিয়া নাই এবং সে আর কিছুতেও ফিরিয়া আসিবে না । সম্প্রতি তোমার স্মরণ করা উচিত যে, বর্জিনিয়া ষাহাদিগকে নিতান্ত ভাল বাসিত তাহার। বৰ্ত্তমান, অর্থাৎ তোমার ও তাহার মাতা অদ্যপি বাচিয়া আছেন । এখন তোমাকে এরূপ শোকবিহবল দেখিলে তাহাদের প্রাণ বাচান ভার হইবেক । অতএব সম্প্রতি এক পরামর্শ বলি শুন, বর্জিনিয়া সৰ্ব্বদ যাহাঁদের সেব। শুশ্রীষায় তৎপর থাকিয়া পরিতোষ প্রাপ্ত হইত, তুমিও এখন সেই কৰ্ম্মেই আত্মমুখ সাধন করিতে যত্নবান হও । ধাৰ্ম্মিকের সতত পরোপকার করত পরম মুখে কাল যাপন করেন । বিষয়মুখাভিলাষ, আমোদ, প্রমোদ, ধন, জন প্রভূতি, মনুষ্যকে কেবল সৎপথ-বিমুখ করিয়া ফেলে, ইহ; তোমার অবিদিত নাই । দেখ ! সৌভাগ্যমঞ্চে আরোহণ করিবার জন্য যে উপায়ের সোপান-পরম্পর আছে, তাহার প্রথমটিতে পদার্পণ করিবামাত্রই তুমি এককালে দুঃখ ও নৈরাশ্য সাগরে নিক্ষিপ্ত হইয়াছ, অর্থাৎ যদি বর্জিনিয়ার ধনের জন্য ফান্সদেশে না যাওয়া হইত, তবে আর তোমার এত দুঃখ হইত না । ফলে বিযয় বাসনায় ও আমোদ প্রমোদে রত হইতে