পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/২৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ミミbr পাল ও বর্জিনিয়া। সান্থনা করিতে হইত বলিয়া তাহার শোক বিস্তুতপ্রায়ই হইয়াছিল, এখন তাহীদের বিরহে সেই শোকনল আবার উদ্দীপ্ত হইল, এবং উপায়াভাবে তাহাকে দিনকত কাল ধৈর্য্য পূৰ্ব্বক সেই দুঃসহ যাতনা সকল সহ করিতে হইল । আহা ! আমি যখন তাহাকে লইয়া গেলাম তখন তিনি পাগলিনী প্রায় ; দিবারাত্রি যেন পার্ল ও বজ্জিনিয়ার সঙ্গেই কথোপকথন করিতেছেন এমনিভাবে আপনা আপনি প্রলাপ করিতে থাকিতেন। যাহা হউক তাহাদের মরণের পর তাহাকে মাসৈককাল বৈ আর বাচিয়া থাকিতে হয় নাই । বৎস ! তাহার গুণের কথা কত বা বলিব, কতই ব। শুনিবে । ষে পিসী হইতে তাহার সর্বনাশ হইয়াছিল, এবং যাহা হইতে তাহাকে অপার শোকসাগরে মজিতে হইল, তাহাকে তিনি মুখ ব্যাদানে একটি বারও নিন্দ করেন নাই, বরং তাহার সেই দোষ মাৰ্জ্জনার নিমিত্ত পরমেশ্বরের নিকট যখন তখন প্রার্থনা করিয়৷ কহিতেন “হে করুণাময় জগদীশ ! রুপা করিয়া আমার পিসীকে পাপ হইতে মুক্ত করুন’ । কিছু দিন বিলম্বে ক একখান। ইউরোপীয় জাহাজ এ প্রদেশে আইলে পর, আমি নাবিকদের প্রমুখtং শুনিলাম যে, সেই নির্দয়া বুদ্ধা জ্ঞানরুত পাপের পরিপাকে মনঃ-ক্ষোভে উন্মত্ত ও ক্ষিপ্তকারায় প্রেরিত হইয়। কলেবর পরিত্যাগ করিয়াছে । পালের শব বজ্জিনিয়ার সমাধির এক পাশ্বে ই সমাস্থিত হইল । তৎপরে তাহাদের জননী-দ্বয়েরও সেই স্থান সার হইল। প্রস্তুভক্ত দাস দাসীরাও তাহীদের