পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ૪ િ কৰ্ত্তবা বোধে তাঁহা স্বীকার করিলাম । শাস্ত্রের বিধি অনুসারে কন্যার সংস্কার করা হইল ; এবং মার গ্রেটের মতে তাহার বজিনিয়। এই নাম রক্ষিত হুইল । নামকরণ সমাপন হইলে পর, মার গ্রেট তাহাকে ক্রোড়ে লইয়া এই বলিয়া আশীৰ্ব্বাদ করিলেন “যে পরমেশ্বর এ কন্যাকে ধৰ্ম্মরত করুন ’ । কতিপয় দিবস অতীত হইলে পর, বিবি দিলাতুর মুস্থ হইয়। উঠিলে, তাহারা দুই সখীতে মিলিয়া আপনাদের দিনপাতের জন্য এই সকল ক্ষেত্রে কৃষিকৰ্ম্ম করিতে আরম্ভ করিলেন । আমিও সধ্যে ২ আসিয়। তাহাদের সেই কৰ্ম্মে সহায়তা করিতাম, কিন্তু তাহtদের সমভিব্যাহারে যে দুই কাফি, দাস ও দাসী ছিল, তাহারাই অবিরত পরিশ্রম করিয়া, যাহা ২ করিতে হয় তাহ! সমাধা করিত । মার গ্রেটের দাস দমিঙ্গের বয়স অধিক হইয়াছিল । তথাপি চাসবাসের পক্ষে যাহা কিছু করিতে হয়, তাহাতে নিপুণতার কিছুমাত্র ক্রটি ছিল না । সে যখন যেমন কাল, তাহার বিশেষ বলাবল বুঝিতে পারিত । তাহাতে কোন শস্য কখন বুনিতে হয়, এবং কখন কি রোপণ করিতে হয়, কখন বা সে সকল প্রস্তুত হইলে কাটিতে হয়, তাহ। কিছুই তাহার অবিদিত ছিল না । তাহদের ক্লষিকৰ্ম্মে এত উৎপন্ন হইত যে সংবৎসরকাল তাহাদের খাইবার জন্য আর কিনিতে হইত না । এবং যাহ। উদ্বর্ভ হইত তাহার বিক্রয় দ্বারা আর ২ প্রয়োজনীয় দ্রব্যও সংগৃহীত হইত। দমিঙ্গের মন এমনি নিৰ্ম্মল ছিল, যে সে মার গ্রেটের অপেক্ষুীয় বিবি দিলাতুরের