পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৩৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ミー কারণ বশতঃ সেই দুই মাত আপন২ বালক বালিকাকে, প্রথমতঃ ভাই বোনকে যাহা বলিয়া ডাকিতে হয়, সেই সকল সম্পকের কথা শিখাইতে লাগিলেন । শিশুরাও তদবধি কেহ কাহাকেও ডাকিতে হইলে সেইরূপ সম্বোধন করিয়া ডাকিত বাল্যকাল অবধি এইরূপে শিক্ষিত হইয় তাহারা পরস্পর আবশ্যক কার্য্যসাধনে সহায়তা করিত । বর্জিনিয়া কিঞ্চিৎ বড় হইয়া উঠিলে সংসারধৰ্ম্মের অনেক কার্য্যের তার তাহার হস্তে সমপিত হয় । বিশেষতঃ সে ভোজনের বিষয়ে তত্ত্বাবধান করা এবং সকল প্রকার খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত করার ভার স্বেচ্ছাপূৰ্ব্বক গ্রহণ করে । বর্জিনিয়া স্বহস্তে দ্রব্যাদি প্রস্তুত করিত বলিয়া পালের যৎপরোনাস্তি আমোদ জন্মিত। সে এই উপলক্ষে বর্জিনিয়াকে সতত ধন্যবাদ ও প্রশংসা করিত। তাহাতে বর্জিনিয়াও আপনার শ্রম সফল এবং আপনাকে চরিতার্থ জ্ঞান করিত । এই সকল ক্ষেত্রে চাসবাস করা ও পৰ্ব্বতীয় রন হইতে জ্বালানি কাষ্ঠ ভাঙ্গিয়া আনার বিষয়ে দমিঙ্গকে সহায়তা করা পালেরই কৰ্ম্ম ছিল । পাল বনে গিয়া যদি ভাল ২ ফল, কিম্ব ছানাশুদ্ধ পার্থীর বাস দেখিতে পাইত, তাহা হইলে সে সেটি তৎক্ষণাৎ তথা হইতে ভাঙ্গিয়া আনিয়া বর্জিনিয়ার হস্তে সমর্পণ করিত । যদি দৈবাৎ কখন একটি শিশুকে কোন স্থানে একাকী দেখা যাইত, তখনি আমনি আর একটিকে তাহার অনতিদূরে অবস্থিত দেখা পাইতে আর কিছুমাত্র বিলম্ব হইত না । এক দিবস আমি পৰ্ব্বত হইতে নামিয় তাহীদের