পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


NこV) পাল ও বর্জিনিয়া। ধনের চর্চা বই অন্য বিষয় অধিক ছিল না ; পরস্তু যাহারা বিশিষ্ট কুলে জন্মিয় ও ধনবান হইয়া নিষ্ঠুর ও দুজনের সহবাস করিতে অনুরক্ত, তাদৃশ কুলোকদিগের মুখাবলোকন করিতে র্তাহার কখনই রুচি হইত না । সৰ্ব্বশেষে বৃদ্ধ ঐ পত্রেতে পুনশ্চ পাঠে এই লিখিয়াছিলেন যে “ আমি অনেক ভাবিয়া চিন্তিয়া এই যে গবর্ণর যাইতেছেন ই হার নিকট তোর জন্য কিছু অনুরোধ করিয়া পাঠাইলাম, তুই তাহ জানিতে পারিবি ’ । বাপু হে ! সেই বৃদ্ধ গবর্ণরের কাছে . যে অনুরোধ করিয়াছিলেন, তাহাতে যে বিবি দিলাতুরের পক্ষে কোন উপকার দর্শিতে পারিত তাহা কোন মতেই সম্ভব নহে ; বরং ভঁাহার নিকট ভ্রাতৃকন্যার এত দুর্নাম করিয়াছিলেন, যে তাহাতে র্তাহার শক্ৰতা প্রকাশ করাই স্পষ্টরূপে ব্যক্ত হইয়াছিল । এদিকে বিবি দিলাতুর, পত্র আসিয়াছে সংবাদ পাইবামাত্র অমনি ব্যস্ত সমস্ত হইয়া এই প্রদেশের গবর্ণর দিলাবৰ্দ্দমুইর নিকটে উপস্থিত হইলেন। কুসংস্কারাবিষ্ট নহেন এমন ব্যক্তিমাত্রেই বিৰি দিলাতুরকে দেখিলে অতিশয় মান সন্তুম এবং কিসে ভঁাহার উপকার হয় এমন চেষ্টা না করিয়া থাকিতে পারিতেন না, কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে সেই গবর্ণরের মন এমনি বিপরীত হইয়াছিল, ষে তিনি তখন র্তাহাকে বিষদৃষ্টিতেই দেখিলেন । বিবি দিলাতুর মেয়েটি লইয়া যে প্রকার দুরবস্থায় পড়িয়াছিলেন, তাহ উtহার নিকটে আদ্যোপাস্ত বর্ণনা করিয়া কহিতে লাগিলেন, কিন্তু তিনি সে