পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


No)\\ტ পাল ও বঞ্জিনিয়া । সাধারণ লোকের হিত করা যায় এমন উপায়ের আম্বেণে সৰ্ব্বদণ কথোপকথন, ও তদ্বিষয়ের আন্দোলন এবং অনুশীলন করিত। সম্পূর্ণ ক্ষমতা না থাকিলেও তাহার সৎকার্ষ্য সাধনে যথাসাধ্য চেষ্টা করিতে ক্রটি করিত না । তাহারা এই নিজন দেশে তাদৃশ ভাবে বাস করাতেই পরস্পর দুঃখের দুঃখী ও মুখের মুখী হইয়। কালযাপন করিত । সুতরাং তাতাতে তাতাদের সেই ভাব নিস্তেজ না হইয়। বরং উত্তরোত্তর প্রবলই হইয়াড়িল । প্রতিদিন তাহাদের মনে যে নব২ প্রসমত উৎপন্ন হইত, তাহার মুলীভূত কারণ সেই অকপট ভাবকেই বলিতে হইবেক । বিশেষতঃ তাহাদের প্রতিবেশবাসীদেব বিষয়ে কোন উপন্যাস এবগ সামাক্তিকদিগের কোন গ্ল'নি ঘটিত কথোপকথন কলিনগর আবশ্যক থাকিত না । তাহার কেবল অনুক্ষণ সকল কৰ্ম্মে স্বভাবজাত পদার্থের সৌন্দর্য্য দর্শনেই সাতিশয় পরিতৃপ্ত থাকিত । এতাদৃশ জন মানববজ্জিত প্রদেশে থাকিয় তাহার ক্ষণকালের জন্যও মুখ সম্ভোগে বঞ্চিত হয় নাই । ত"হারা কেবল প্রক্লতি জাত পদার্থের নিরন্তর উপভোগে প্রতিদিন স্বতন ২ মুখ সচ্ছন্দ স:দ্যাগ করত সৃষ্টিকৰ্ত্তার প্রতি পন্যবাদ করিয়া কালহরণ করিয়াছিল । পালের যখন দ্বাদশবর্ষ পয়ঃক্রম, তখন সে ইউরোপের পোনের বৎসরের লালক হক্টতেও সমধিক বলবান ও বুদ্ধিমান হষ্টয়া উঠিল। দমিজ এ সকল ক্ষেত্রে যে সমস্ত গাছ পালা এবং নানাজাতীয় শস্য রোপণ করিত, পল সবিকাশ মতে সে সমুদয় গুলি পরিস্কৃত