পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ৬ ৭ করিয়া দিত, এবং তাহার সমভিব্যাহারে গিয়া বাতাবিলেবু, কমললেবু, পাতিলেবু, কাগজিলেবু, তিন্তিড়ী, খজুর প্রভৃতি রক্ষের নিকটবত্তি বনে ক্ষুদ্রই চার সকল সমুলে উৎপাটন করিয়া আনিয়া, আপনাদের এ সকল ক্ষেত্রে রোপণ করিয়া দিত । তদ্ব্যতীত এসব ক্ষেত্রের স্তানে২ উত্তমোত্তম পুষ্পরক্ষও রোপিত করিয়া দিয়া, ছিল । এ সকল পৰ্ব্বতীয় স্থানে ক্লষিকৰ্ম্ম সম্পন্ন করা কি সহজ ব্যাপার ? পাল নিজ বাহুবলে দিবারাত্র পরিশ্রম করিয়া কেবল এ সকল স্তানকে উর্ধ্বর করিয়া তুলিয়া ছিল । ঐ দেখ, গণ্ডশৈলের উচ্চতম প্রদেশে পালের স্বহস্তাজিত নানাজাতীয় অগুরু, চন্দন, অশ্বথ, ৰট, প্রভৃতি রক্ষ সকল নানা বর্ণের কুমুম ও পত্রে সুশোভিত হইয়া, আজি পৰ্য্যস্তুও শোভা বিস্তার করতেছে । এই উপদ্বীপস্ত শৈলশিখর হইতে নিঝ রপাত হইয়া যে নদী প্রবাহিত হইতেছে, তাহার নিৰ্ম্মল জলেতে তরু গুল্ম লতাদির হরি দ্বর্ণ প্রতিভা ও অবনত পৰ্ব্বতের প্রতিবিম্ব, এবং আকাশের প্রতিচ্ছায়া পতিত হটলে যে কি পৰ্য্যন্ত শোভা পাইত, তাহ! কি বর্ণনা দ্বারা ব্যক্ত করা সহজ ? । ইতিপূৰ্ব্বে এতং প্রদেশের ভূমি সকল অত্যন্ত দুর্গম ছিল, ইচ্ছাক্রমে যেখানে সেখানে গমনাগমন করা বড় সহজ ব্যাপার ছিল না । পরে কেবল পালের অপরিমিত পরিশ্রম-প্রভাবে এখানকার এক প্রদেশ হইতে প্রদেশাস্তরে যাতায়াত করা অনায়াসেক্ট হটতে লাগিল । এখনও প্রায় সেই প্রকার রহিয়াছে, বড় লুপ্ত হয় নাই। পাল, এই সকল