পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বেদাস্ত-দর্শন । .." ১৯৯ নারদের উপদেশে সমাধি-যোগ-সাধনায় বেদব্যাস ঐ ভাষ্য প্রাপ্ত হন—পুরাণাদি শাস্ত্রে এইরূপ গিধি ত আছে। বৈষ্ণব-সম্প্রদায়ের মতে মধ্বাচার্য্যের ভাষ্যই শ্ৰীমদ্ভাগবতের অনুমোদিত ; শ্ৰীমদ্ভাগবত রূপ ভাষ্যগ্রন্থ প্রচলিত ছিল বলিয়, শ্রীচৈতন্যদেব বেদান্ত-দর্শনের কোনরূপ নুতন ভাষ্যগ্রন্থ প্রণয়ন করা আবখ্যক বলিয়া মনে করেন নাই। তবে যে যে স্থলে মধবাচার্য্যের মতের সহিত চৈতন্যদেবের মতবিরোধ ঘটিয়াছিল, তত্তৎস্থলে তিনি যে অর্থ পরিগ্রহ করিয়াছিলেন,পরবৰ্ত্তি-কালে বলদেব-বিদ্যাভূষণ-কুত গোবিন্দভায্যে তাহাই লিপিবদ্ধ হইয়াছিল। আনন্দগিরি ও বাচস্পতি মিশ্র শঙ্করাচার্য্য-কৃত ভায্যের এবং সুদর্শন রামাম্বুজBB BBBB BBS KBB BBB S BBBB BBB BB BBBB BDS BBBBS BBB সুদৰ্শনের টীকার নাম—‘শ্রুতপ্রকাশিক । ঐ দুই টাকা এখন বিশেষ প্রসিদ্ধ। মূল বেদান্তYBB BB g BBBS TBSBBB BBBB BBBBS BBSBBBSBB DDBBS BB g mBBBBBBBB BBBBS BBB BBS BBB BBS BB BB BBS BBBBB BBBBS তদনুসারে, বেদান্ত-দর্শনকে ভিত্তিস্বরূপ গ্রহণ করিয়া, বিভিন্ন মতাবলম্বী পণ্ডিতগণ বিভিন্ন গ্রন্থ প্রণয়ন করিয়া গিয়াছেন । বেদান্ত-স্থত্রের ভাস্য-সমূহে অদ্বৈতাদি যে মত-পরম্পরা প্রতিষ্ঠিত হইয়াছে, বেদান্ত-দর্শন প্রণয়নের পূৰ্ব্বেও তাহ) প্রচলিত হইল । যে অদ্বৈতবাদ মাধুক্যোপনিষদে প্রচ্ছন্নভাবে অবস্থিত ছিল,গৌড়পাদাচাৰ্য্য আপন কারিকায় যাহার আভাস প্রদান করিয়া গিয়াছিলেন, শঙ্করাচার্য্য কর্তৃক তাত। প্রস্ফুট হইয়াছিল । এইরূপ বিশিষ্টাদ্বৈত মতও বৌধায়ন-প্রমূখ আচার্য্যগণের অনুসরণে রামানুজ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হইয়াছিল— KKB KBBS BSBS S BBBSBBB BBB BBBS BB BB MgBB BBBB BBBB BBBBBS এবৰ্ত্তিত অদ্বৈতমতের পরিপোষণ-কল্পে পরবৰ্ত্তি-কালে যে সকল গ্রন্থ বিরচিত হয়, তন্মধ্যে পঞ্চদশা, বেদান্তসার, বেদাস্ত-পরিভাষা, তত্ত্ব প্রদীপিকা, অদ্বৈতব্রহ্মসিদ্ধি প্রভৃতি প্রসিদ্ধ। বিশিষ্টাদ্বৈত মত সংস্থাপন জন্য রামানুজ যে সকল গ্রন্থ প্রণয়ন করেন, তন্মধ্যে BBBBB BBS BBBBBBS BBBBB BBB BBBBB S BBBBS BBB BBB ggBB বিভিন্ন মতের স্বষ্টি-পরিপুষ্টি সাধিত হইলেও, উহার একই স্থত্রের কতরূপ অর্থ হইতে পারে, ভাৰ্যসমূহ আলোচনা করিলে, তাহা বুঝিতে পারা যায় ; এবং তার প্রাচীন মনীষিগনের জ্ঞান-গবেষণায় বিস্ময়-বিমুগ্ধ হইতে হয় । তায্যকারগণের ব্যাখ্যানুসারে বেদান্ত-সুত্রে স্বৈত ও অদ্বৈত দ্বিবিধ ভাবের জাভাস প্রতিফলিত হইলেও, বেদান্ত-দর্শনের ও মুখ্য-উদ্দেশু —সেই নিঃশ্রেয়স বা আত্যন্তিক দুঃখনিবৃত্তি । অদ্বৈতবাদীর মতে,- “জীব ও ব্রহ্ম অভিন্ন ; আবিদ্যা বা মায়ার আবরণে আবৃত হইয়াসে আপনাকে ও ব্রহ্মকে ভেদভাবে ভাবিয়া থাকে ; তত্ত্বজ্ঞান উদয় হইলে, অর্থাৎ জীব যে ব্ৰহ্ম হইতে অভিন্ন—এই ভাব অস্তরে জাগরুক হইলে, অবিদ্যা দূর হয় ; অবিদ্যা দূর হইয়া জীব ও ব্রহ্মের ঐক্য জ্ঞান সাধিত হইলেই জাবের যুক্তিলাভ হইয় থাকে। সোংহং, “অহং ব্ৰহ্মান্ত্রি’-তিনিই SttBBDD DDSDDDD DBBB BBu DD DDDD DDDDD kk DDD দ্বৈগুদ্বৈত ¥ಳ್ತ ! ছিলেন। সে জালোচল অন্যত্র জtষ্য।