পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করেন,-“বে পাত্রের সহিত বিবাহের কথাবার্তা স্থির হইয়া আছে,-সেই ভাৰী পতি। যদি নিরুদেশ হয়, মরিয়া যায়, প্রত্ৰজ্য অবলম্বন করে, ক্লাব বলিয়া স্থির হয় বা পতিত হয়, তবে এই পঞ্চপ্রকার আপদে ঐ কস্তার পাত্রাস্তরে প্রদান বিহিত ” এক পক্ষ বলেন,-শ্লোকটা বিবাহিত কস্তার সম্বন্ধে উক্ত হইয়াছে ; অন্ত পক্ষ বলেন-শ্লোকটা বাগদত্ত কন্যার সম্বন্ধে উক্ত হইয়াছে। বাহাই হউক, মহৰ্বি পরাশর বিধবার ব্রহ্মচর্যের প্রাধান্তই ষে কীৰ্ত্তন করিয়া গিয়াছেন, পরবর্তী শ্লোকত্রয়ে তাহা স্পষ্টতঃ উপলব্ধি হয় ;– SBBB BBD D DD DDBB BBBS B BB BBB BB BB B BBBBttt BB BBBB BB BBB BBB BBS BBB BBB BBB BB BBBL 0tBBBBS S BBBB DD BBB BDDDDB BBBS BDDBB BBBB BBBB BBBBBB S অর্থাৎ, স্বামীর মরণাস্তে যে নারী ব্রহ্মচৰ্য্য অবলম্বন করেন, তিনি মৃত্যুর পর ব্রহ্মচারীর স্তায় স্বৰ্গলাভ করেন। আর স্বামীর মরণে যিনি সহমৃতা হন, তিনি সাৰ্দ্ধ ত্রিকোট কাল স্বৰ্গভোগ করেন। ব্যালগ্রাহী যেমন গর্ত হইতে সর্পকে বল-পূর্বক বাহির করিয়া জানে, সহমৃতা নারী তেমনি মৃত পতিকে উদ্ধার করিয়া আনন্দ উপভোগ করে । ফলে, পতির মৃত্যুর পর, স্ত্রীলোকের পক্ষে ব্রহ্মচৰ্য্য অথবা সহমরণের ব্যবস্থাই প্রকৃষ্ট বলিয়া বুঝা যাইতেছে। সহমরণ এখন বিধি-নিষিদ্ধ ; সুতরাং বর্তমান কালে বিধবার পক্ষে ব্রহ্মচৰ্য্যই শ্ৰেয়ঃ —ইহাই এখন হিন্দুসমাজের অভিমত। পরাশর-সংহিতার সপ্তম অধ্যায়ে দ্রব্যগুদ্ধির বিষয়, অষ্টম হইতে দশম অধ্যায়ত্রয়ে নানাবিধ প্রায়শ্চিত্ত-সংস্কারের প্রসঙ্গ উল্লিখিত হইয়াছে। পরাশর এই সংহিতার নানা স্থানে মন্থসংহিতার মতই প্রামাণ্য বলিয়। স্বীকার করিয়াছেন । তীর্থযাত্রা ও তীর্থস্থান-দর্শন প্রসঙ্গে এই সংহিতায় সেতুবন্ধদর্শনের পুণ্য-কথা লিখিত আছে। পাপাচারীর সহিত একত্র বসবাসে, শরীরে যে কিরূপ ভাবে পাপ সংক্রমিত হয়,—পরাশর একটা সুন্দর উপযায় তাহ ব্যক্ত করিয়া গিয়াছেন ;– SBBBBBBBBBB BDD BBBDDD S BBBBB BBBB BBBBBBDDDB S অর্থাৎ—জলের উপর তৈলবিন্দু পতিত হইলে তাহ যেমন সৰ্ব্বত্র বিস্তৃত হইয়া পড়ে, পাপীর সহিত বসিলে, শয়ন করিলে, গমন করিলে, আলাপ করিলে, ভোজন করিলে শরীরে সেইরূপ পাপ-সঞ্চার হইয়া থাকে । চতুর্দশ-ব্যাস-সংহিতা। মহুধি বেদব্যাস এই সংহিতার প্রবর্তক। চারিটি ক্ষুদ্র জৰাজে দুই শত একচল্লিশটা মোকে সম্পূর্ণ। বারাণসী থাষে অবস্থানকালে, মহৰি বেজব্যাস মুনিগণের নিকট চারি বর্ণের কর্তব্য-বিষয়ে যে উপদেশ দিয়াছিলেন, ব্যাপসহিত। ইহাতে তাহাই উল্লিখিত আছে। ম্লেচ্ছ-শল্পের ব্যবহার আছে দেখিয়া, এই সংহিত মুসলমান-শাসন-সময়ে রচিত হইয়াছে বলিয়া অনেকের ভ্ৰম ধারণা। এই সংহিতায় মানৰে নিত্য কর্তব্য-কর্মের ও সংস্কার-বিধির আলোচনা আছে, DBBBB BBBB BBBBBB BBB BBtttBB DDDDD S gB BBBB BBSDDDB BBB BBB DDDD BBBS S S