পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৬২ ৷ ভারতবর্ষ | দণ্ডিত করিবেন।” * জনসাধারণের অপরাধের জন্য, অপরাধের তারতম্যানুসারে নানাবিধ দণ্ডের উল্লেখ দেখিতে পাওয়া যায়। অপরাধ-বিশেষে অঙ্গচ্ছেদ এবং প্রাণদণ্ড পর্যান্তের ব্যবস্থা ছিল। শূদ্র যদি জঘন্য ভাষায় দ্বি-জাতিকে গালি দেয়, তাহার পক্ষে জিহাচ্ছেদ ; শুদ্র যদি কোনও অঙ্গের দ্বারা দ্বি-জাতিকে প্রহার করে, তাহার দ্বও—সেই অঙ্গচ্ছেদ ; চোর ষে অঙ্গ দ্বার পরঘন হরণ করিবে, পুনৰ্ব্বার তেমন কাৰ্য্য না করে, তজ্জন্ত রাজ। তাহার সেই অঙ্গ ছেদন করিয়া দিতেন । কেবল শূদ্র বলিয়া নহে ;-এ বিষয়ে দ্বি-জাতির দগু আরও গুরুতর । সে ক্ষেত্রে জ্ঞানের তারতম্যাকুসারে দণ্ডের তারতম্য ছইত । চুরি করা পাপ-কার্য বুঝিয়া ও কোনও শূদ্র যদি চুরি করে, সাধারণ চোরের অপেক্ষ তাহার দণ্ড-আট গুণ অধিক । তদ্রুপ বৈগু-চোর ষোড়শ গুণ দণ্ডনীয়, ক্ষত্রিয়-চেপ্নেপু বত্রিণ গুণ, ব্রাহ্মণ-চোরের চৌষট্টি গুণ, এবং গুণবান ব্রাহ্মণ চোরের এক শত আটাইশ গুণ দও হইত। পরস্ত্রী-গমন সম্বন্ধেও অঙ্গচ্ছেদ-রূপ গুরু-দণ্ডের বিধান আছে । এইরূপ নাম অপরাধের কঠিন-কঠোর দণ্ড সংহিত-শাস্ত্রে দেখিতে পাওয়া যায়। রাজ-কর গ্রহণ-সম্বন্ধে মহখি মমু নির্দেশ করিয়া গিয়াছেন,-“যাহাতে প্রজাবর্গের অণুমাত্র কষ্ট না হয়, সেই ভাবে বিশেষ বিবেচনা-পূর্বক আপন রাজ্যমধ্যে রাজা রাজ-কর নিদ্ধারণ করবেন — যথtল্প tল্পমদ স্ত্যাদং বার্য্যোকোবৎসষট পদা: | তথাল্লায়ো গ্রহীতব্যে রাষ্ট্রাদ্রাজ্ঞদিক: করঃ। জলোঁকার শোণিতপানের স্থায়, বৎস্তের দুগ্ধপানের স্তায় এবং ভ্রমরের মধুপানের স্তায় অল্পে অল্পে প্রজার নিকট রাজার কর গ্রহণ করা কৰ্ত্তব্য। ধাস্তাদি শস্তের ষষ্ঠ, অষ্টম বা স্বাদশাংশ এবং অধিকাংশ পণ্য-দ্রব্যের ষষ্ঠাংশ রাজার প্রাপ্য ।” দাসদাসীগণের বৃত্ত্বি তখন এইরূপভাবে নির্দিষ্ট হইত ;–সাধারণতঃ তাহাদের দৈনিক বেতন-একপণ কড়ি, ছয় মাস অন্তর বস্ত্র এবং মাসিক এক দ্রোণ ( প্রায় দুই মণ ) ধান্ত প্রদানের ব্যবস্থা ছিল । যোগ্যতানুসারে বিশেষ বিশেষ ভূত্যগণ ছয়গুণ পৰ্য্যস্ত বেতন প্রাপ্ত হইত। মসুর মতে,— বিবাদের মুল—অষ্টাদশবিধ । সেই অষ্টাদশ স্থানেই লোকে প্রধানতঃ বিবাদে প্রবৃত্ত হয় । সুতরাং তদনুসারেই তিনি বিবাদ-নিম্পত্ত্বির ব্যবস্থা করিয়া দিয়াছেন । সেই অষ্টাদশ বিবাদ-স্থান-মধ্যে ঋণদান, সস্তু-সমুখান, বেতন-দান, ক্রয়-বিক্রয়ান্থশয়, সীমা-বিবাদ, স্ত্রী ংগ্রহণ, দ্যতক্রীড়া প্রভৃতি বিশেষ উল্লেখ-যোগ্য। বিচার-পদ্ধতি-বিষয়ে দেখিতে পাওয়া যায়,-রাজ বা মন্ত্রী সকল কাৰ্য্য পরিদর্শন করিতেন ; সময়ে সময়ে রাজার প্রতিনিধিরূপে একজন বিদ্বান ব্রাহ্মণ, তিন জন সদস্তের সহিত ধৰ্ম্মাধিকরণে রাজ-কাৰ্য্য নিৰ্বাহ করিতেন । দুই এক স্থলে বিষয়-বিশেষে সংহিতা-সমূহের মধ্যে মতান্তর দৃষ্ট হইলেও, সকল সংহিতারই মূল প্রতিপাদ্য-আচার-রক্ষা, ধৰ্ম্ম-রক্ষা, সমাজ-শৃঙ্খলা-রক্ষা। সে পক্ষে, সকল সংহিতাই প্রধান ও প্রায় মনুসংহিতার মতানুসারী ; সকলেই প্রায় এক পথের পধিক। তবে যে তাহাদের মধ্যে বিষয়-বিশেৰে মতান্তর দৃষ্ট হয়, সে কেবল দেশ-কাল-পাত্রের সামৱন্ত-বিধানে প্রণালী-ভেদ মাত্র । - همومهمضمي يصيب عصيصحنه "

  • মতুসংহিত, সপ্তৰ স্থধ্যায়, ১১৩শ হইতে ১২৪শ মোক এইবা ।