পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্মৃতি । ンぐりぐ যুদাস, সুযুখ, নিমি, দক্ষ, দিলীপ,রাম প্রভৃতি। সংহিতা-সমূহ যদি একাস্ত পরবপ্তি-কালের । রচনা হইত, তাহা হইলে তৎকালবৰ্ত্তী অন্যান্ত রাজগণের নামও কোনও-না-কোনও আকারে এতন্মধ্যে স্থান পাওয়া সম্ভবপর ছিল । বৌদ্ধ-যুগে বা মুসলমান-শাসনের সময়ে হিন্দু সমাজ যেরূপ বিচঞ্চল হইয়া উঠিয়াছিল, তাহাতে, তত্তৎকালে সংহিতা-সমূহ রচিত BJK BBBB BBB BBBSSSBBBB BBB BBB BBBB S BBBBSBBBB প্রতি দৃষ্টপাত করিলেও, উহা আধুনিক বলিয়। প্রতীত হয় না। ফলে, হিন্দুর বিশ্বাস,— সংহিত। সমূহ আবহমানকাল প্রচলিত আছে । যুগে যুগে ভাষার তারতম্যে ঘদিচ উহার কোনও কোনও অংশ পরিবর্তিত ও পরিবর্দ্ধিত হওয়া অসম্ভব মহে ; কিন্তু ভাবপরম্পর যে পূর্ণ পর সমভাবেই বিদ্যমান রহিয়াছে, তাহ যুক্ত-কণ্ঠে স্বীকার করা যায়। স্মৃতি-সংহিতার প্রসঙ্গ আলোচনা করিতে করিতে স্মাৰ্ত্ত রঘুনন্দনের স্মৃতি আপনাপনিই মনোমধ্যে জাগিয় উঠে । যদি ও রঘুনন্দন তুলনায় সে দিনের লোক—সেদিন মাত্র বঙ্গদেশে জন্ম গ্রহণ করিয়াছিলেন, কিন্তু তূণ হার মতানুসারে বঙ্গদেশের হিন্দু-সমাজ এখনও পরিচালিত ও শৃঙ্খলাবদ্ধ । সুতরাং স্মৃতির কথ। কহিতে হইলে, এখন তাহার কথা কহিবার প্রয়োজন হয় । বৌদ্ধ-ধৰ্ম্মের ট্রাম-তরঙ্গাভিঘাতে বঙ্গ-সমাজ যখন বিভঙ্গ-প্রায়, মুসলমান-শাসনের সংসৰ্গা ধীনে পড়িয়। ঠিন্দ সমাজ যখন বিমলিন-প্রায়, ঘোর বিধৰ্ম্ম-কুঞ্জটিকায় যখন বঙ্গের এক প্রান্ত হইতে অপক প্রান্ত সমাচ্ছন্ন, সেই সময়ে নবদ্বীপে রঘুনন্দন ভট্টাচাৰ্য্য জন্মগ্রহণ করেন । খৃষ্টীয় গোড়শ শতাব্দীর প্রথম ভাগে, শ্ৰীচৈতন্সের আবির্ভাবের মাত্র কুড়ি পাঁচশ বৎসর পূৰ্ব্বে, BBBBBB BB BBS BBB BB BBBBB S BBBBD S BBBBBB BBBBB BBB প্রাপ্ত বলিয় প্রসিদ্ধ ছিলেন। কিন্তু রঘুনন্দন সেই পিতার স্মৃতি অধিকতর উজ্জ্বল করিয়া mmggSBBB S BBBBBB BBBB BBB BBB BBBB BBBBB BBBB SSS BB BB DDBB BBB BSBB BBBBBSSSBBBB BBBS BBB BBB BBB BBS BB SBBBBS ধাবার স্রষ্ট হইতে বসিয়াছে। রঘুনন্দনের হৃদয়-দৰ্পণে যখন সেই চিত্র প্রতিভাত হইল, তখন তিমি সমাজ-সংস্কারের আবহু কত উপলব্ধি করিলেন । তিনি যতই সমাজের বিশৃঙ্খলার বিষয় স্থাবিতে লাগিলেন, ততই তাহার প্রাণ অধীর হইয়া উঠিল । তিনি দেখিলেন,— SSBBBB BBB BBD DD BB B BBB BBB BBBBB BB BBBBSBBB সি স্মৃতিতে ভিন্ন ভিন্ন মত ব্যক্ত হইয়াছে দেখিয়া, জন-সাধারণ অধিকতর বিভ্রান্ত হইয় পড়িতেছে ; অধিকন্তু, সেই মত-বৈষম্যের সুযোগ পাইয়া, ভিম্ন-ধৰ্ম্মিগণ জাপন স্বার্থপিন্ধির সুবিধা পাইতেছে ; তাহাতে মোহু-ঘোরে, কেহ বা ধৰ্ম্ম স্তরের আশ্রয় লইতেছে, কেই বা নাস্তিক্য-মতের অনুসরণ করিতেছে। এই দেখিয়া, সমাজের দারুণ দুর্দশার দিন বুঝিতে পারিয়া, রঘুনন্দন শ্রুতি-স্মৃতির সামঞ্জস্ত বিধানে—প্রকৃষ্ট মত স্থাপনে—প্রাণ" শবপণ করিলেন। পচিশ বৎসর কাল ঐকাত্তিক সাধনার ফলে, ‘অঃাবিংশতি "তত্ব সঙ্কলিত হইল। তাহাতে শ্রুতি-স্মৃতি-পুরাণ-তন্ত্রাদি নানা শাস্ত্রের প্রমাণ উদ্ভুত । "বসুনন্দন পরস্পর-বিরোধী মত সমূহের এক-বাক্যতা নিরূপণ করিলেন। অষ্টাবিংশতি মু হুঁ রঘুনন্দন ।