পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/১৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>૧ક ভারতবর্ষ। কৱিৰ্ণ । কিন্তু হীরক যতই লঘু হইবে, ততই তাহার প্রাধান্ত জানা যাইবে ।" এইরূপ মুক্ত-প্রসঙ্গে, মুক্তার উৎপত্তি ও মূল্য প্রভৃতির পরিচয় এই পুরাণে পাওয়া যায়। স্বৰ্য্যাদি প্রমাণ-সংস্থান কীৰ্ত্তন, জ্যোতিঃসার কীৰ্ত্তন, লয়-মান-কথন, প্রশ্নগণনা এবং নান নীতিসার,--এই গরুড় পুরাণে পরিবর্ণিত রহিয়াছে। চাণক্যের বহু নীতি-কথ। এই পুরাণের পূর্বখণ্ডে অষ্টাধিকশততম অধ্যায় হইতে পঞ্চদশাধিকশততম অধ্যায়ে দৃষ্ট হয়। বিষ্ণুশৰ্ম্মার হিতোপদেশ গ্রন্থেও সেই সকল নীতি-কথা দেখিতে পাওয়া যায়। যেমন,— S SB BBB BBBBB BBtBB BBBS BBB BB BBB BBBB BBBB BS SSBBBB BBBBBB BBBBBBB BBBB S BBBB BBBBB BB BBB B BBBS SS রাজ-ধৰ্ম্ম-পালন সম্বন্ধে এই পুরাণের নীতিসার-প্রসঙ্গে কি সুন্দর দৃষ্টান্তই উক্ত হইয়াছে। “পুষ্পাৎ পুষ্পং বিচিনুয়াম্মলচ্ছেদং ম কারয়েৎ । মালাকার ইবারণ্যে ন ঘথাঙ্গারকারকঃ ॥ ggtB BBSBBB BBBB BB BBSBS BBBBB BBBBBBBBBBBB BB BBBBB S BBBBDD B BB BBB BBB BBS BBB BBS BBBB BBBBBB BBBBS মালাকার পুষ্প-বৃক্ষ হইতে পুষ্প গ্রহণ করে; কিন্তু অঙ্গারকারীর ন্যায় বৃক্ষের মূলোচ্ছেদ করে না। রাজাও তদ্রুপ প্রজার অনিষ্ট না করিয়া, তাহার নিকট যথাসম্ভব কর-গ্রহণ করিবেন। দোগ্ধ। যেমন দুগ্ধ পান করে, কিন্তু তাহ বিকৃত করে না ; রাজ! তেমনি করগ্রহণ করিবেন ; কিন্তু অত্যাচারাদি-দোষে রাজ্য দূষিত করিবেন না । দুগ্ধার্থী যেমন দুগ্ধ দোহন করে, কিন্তু গভীর স্তনঃচ্ছেদন করে না ; রাজাও সেইরূপ পর-রাজ্যকে শাসনে রাখিবেন, কিন্তু তাহার উচ্ছেদ-সাধন করিবেন না । مہ’’ সপ্তম—নারদীয়-পুরাণ। এই পুরাণ চারি পদে বিভক্ত। প্রথম-পাদ,—মোক্ষ-ধৰ্ম্ম, মোক্ষেপায়, দীক্ষা-গ্রহণ, বিষ্ণু-শিব-শক্তির বিবরণ, বিবিধ স্তোত্র মন্ত্র প্রভৃতিতে পরিপূর্ণ। দ্বিতীয় পাদে,-গাণপত্য, সৌর, বৈষ্ণব ও শৈব-চারি সম্প্রদায়ের ধৰ্ম্মনারদ-পুরাণ। কথার উল্লেখ দেখিতে পাওয়া যায়। তৃতীয় পাদে,—নারদ ও সনৎকুমারের কথোপকথনচ্ছলে পুরাণ-প্রসঙ্গ, দান-ধৰ্ম্ম ও ব্রত-বিবরণ লিখিত আছে । চতুর্থ তাগে,-কাশী, পুরুষোত্তম, প্রয়াগ, হরিদ্বার, কামাখ্য। প্রভূতি বহু তীর্থের মাহাত্মাকথা এবং বশিষ্ঠ, মান্ধাতা, গৌতম ও মোহিনীর উপাখ্যান প্রভৃতি বিষয় বর্ণিত হইয়াছে। বিষ্ণুর প্রাধান্ত-কীৰ্ত্তনই—এই পুরাণের মুখ্য লক্ষ্য। ঐহরির উপাসনায় অভীষ্ট-সিদ্ধির বিষয়ে ৰিবিধ উপাখ্যানের অবতারণায় সেই উদ্বেশু সাধিত হইয়াছে। অধুনা দুই খানি সারদীয় পুরাণ প্রচলিত আছে। তন্মধ্যে একখানি নারদীয়-পুরাণ এবং অপর-খানি বৃহন্নারদীয়-পুরাণ নামে অভিহিত হয় । মূলতঃ উভয় পুরাণেরই উদেশ্ব অভিন্ন । । অষ্টম—শ্ৰীমদ্ভাগবত। অনেকের মতে, শ্ৰীমদ্ভাগবত শ্রেষ্ঠ পুরাণ। বৈঞ্চব-সম্প্রদায় শ্ৰীমদ্ভাগবতকে পরম ভক্তি-সহকারে পূজা করিয়া থাকেন। এই মহাপুরাণের রচনা এতই . . . . সুন্দর ও এতই মধুর যে, সাহিত্য-জগতে ইহা শ্রেষ্ঠ-স্থান অধিকার এবভাগবত। করিয়া আছে। খ্ৰীকৃষ্ণের মাহাত্ম্য-প্রচার এবং হৃদয়ে ধর্ণভাবে * উন্মেষ৭–খ্রক্ষাগবতের প্রধান উদেণ্ড । এই ঐমদ্ভাগবতের দশমDB BBBBB BBBBB DDD DDDDDDD BBBBBBB BB BBBSBBB BES