পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> సి$ల - . ভারতবর্ষ। সম্বন্ধে এই মত প্রচলিত হইলেও, বর্তমান-কালোচিত পরিমাপ-দণ্ডে, পাশ্চাত্য পণ্ডিতগণের গবেষণার ফলে, পুরাণাদির রচয়িতা ও রচনা-কাল বিষয়ে, পূৰ্ব্বোক্ত সিদ্ধান্তে নানা মতান্তর দেখিতে পাই । তাহাদের মতে,—“পুরাণ-সমূহ বেদব্যাস-নামধেয় কোনও নির্দিষ্ট এক ব্যক্তির রচনা হওয়া সম্ভবপর মহে। তিনি সংগ্রহকার হইতে পারেন ; কিন্তু তিনি যে রচনাকার, তাহ কোনক্রমেই বুঝা যায় না। হয় তো, পূর্ব-পূৰ্ব্ব কালে ভিন্ন ভিন্ন ঋষিগণপুরাণসমূহ রচনা করিয়া গিয়াছিলেন, এবং বেদব্যাস তাহ সংগ্ৰহ করিয়া প্রচার করিয়াছিলেন । বেদ-সংগ্ৰহ করিয়া, বেদ-বিভাগ জন্য, তিনি যেমন বেদব্যাস নামে পরিচিত হন ; পুরাণসমূহ সংগ্ৰহ করিয়াও সেইরূপ পুরাণ-প্রণেতা বলিয়া, তাহার প্রসিদ্ধি লাভ অসম্ভব নহে। ভিন্ন ভিন্ন পুরাণে, শাক্ত-শৈব-বৈষ্ণব-গাণপত্য প্রভৃতি ভিন্ন ভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রাধান্যপ্রতিষ্ঠার চেষ্ট হইয়াছে, সুতরাং পুরাণ-পরম্পরা এক জনের রচিত বলিয়। মনে করিতে পারা যায় না । বেদব্যাসের স্থায় পণ্ডিত ব্যক্তির মতি স্থির থাকিবে না, তিনি নানা সময়ে নানা যত প্রচার করিবেন,~ইহা কোনক্রমেই বিশ্বাস হয় না। অধিকন্তু, বেদব্যাস কর্তৃক পুরাণ-সমূহ সংগৃহীত হওয়ার পরও উহাতে নানা বিষয় নুতন সংযোজিত হইয়াছে । যখনই ভারতবর্ষে যে সম্প্রদায় প্রাধান্য লাভ করিয়াছেন, তাহদেরই প্রতিষ্ঠা-স্থাপনের জন্য —হয় কোনও নুতন পুরাণ রচিত হইয়াছে—নচেৎ কোনও প্রাচীন পুরাণে তাহাদের মতপরম্পর। তাহারা সন্নিবিষ্ট করিয়। গিয়াছেন – এইরূপ নানা যুক্তি-তর্কের পর, পাশ্চাত্যপণ্ডিতগণ প্রধানতঃ স্থির করিয়াছেন,--“খুষ্ট-জন্মের বহু পরবর্তি-কালে পুরাণ-পমূহ রচিত হইয়াছে।’ তাহাদের কেহ-বলেন,—পাঁচ শত হইতে হাজার খৃষ্টাব্দের মধ্যে ; কেহ বলেন,— এয়োদশ শতাব্দীর প্রারম্ভে ; কেহ বলেন,— মুসলমান-শাসনের পরবর্তি-কালে ; কেহ বলেন, SKBBBSBBBB BBBBB S gBBB BBSBBB BBSBB BBB BBB BBS কাহারও মতে,-"পুরাণ-মাত্রেই বুদ্ধ-দেবের বৃ কান্ত লিখিত আছে ; সুতরাং বুদ্ধ-জন্মের পরবর্তি-কালে পুরাণ-সমূহ রচিত হওয়া সম্ভবপর। কেহ বলেন,--“খুষ্টীয় পঞ্চদশ-শতাব্দীর মধ্যভাগে বল্লভাচার্য্য বৈষ্ণব-সম্প্রদায়ের প্রবর্তন করেন ; শ্ৰীমদ্ভাগবত ও ব্রহ্মবৈবর্ত-পুরাণে বৈষ্ণব-বর্গের-রাধা-কৃষ্ণের-প্রাধান্তু কীৰ্ত্তিত হইয়াছে; সুতরাং, ঐ দুই গ্রন্থ পঞ্চদশ শতাব্দীর শেষভাগে রচিত হইয়াছিল * ভাগবতে ম্লেচ্ছ-রাজার অধিকার ও ম্লেচ্ছদেশ প্রভূতির উল্লেখ দৃষ্টে এবং স্কন্দ্র-পুরাণে জগন্নাথ-দেবের মন্দির প্রভৃতির বর্ণনা দেখিয়, (জগন্নাথের মন্দির খৃষ্টীয় দ্বাদশ শতাব্দীতে নিৰ্ম্মিত হইয়াছে, এই অনুমানে ), ঐ দুই পুরাণকে র্তাহার। আধুনিক বলিয়া মনে করেন । কিন্তু র্যাহারা একটু অভিনিবেশ-সহকারে পুরাণসমূহ আলোচনা করিয়াছেন ; যাহারা একটু ধৈর্য্য-সহকারে পুরাণ-সমুদ্রের গভীরতার মধ্যে অবগাহন করিতে পারিয়াছেন ; কি প্রাচ্য, কি পাশ্চাতা—যিনিষ্ট হউন না কেন, তাহাকে নিশ্চয়ই পুরাণের প্রাচীনত্বে বিস্থিত হইতে হইয়াছে। অনেকেই জানেন, পশ্চাত্য-পণ্ডিতগণের মধ্যে অধ্যাপক এইচ এইচ উইলসন পুরাণ-সম্বন্ধে বিশেষরূপ আলোচনা করিয়াছেন। তাহার অম্বুবাদিত বিষ্ণু-পুরাণ পাশ্চাত্য-জগতে বিশেষ সমাদৃত হইয়াছে। তিনি কিন্তু পুরাণ-সমূহের কাল-নির্ণয় সম্বন্ধে বলিয়াছেন,—"ষ্ট-গন্মের তিন শত বৎসর পূৰ্ব্বে পুরাণ