পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/২২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


༤ ༤སྐྱ ་་་་་་ ভারতবর্ষ | বিশোষণ্ড করা হইয়াছে ; তন্ত্রে তিনি পরম-প্রকৃতি, আছাশক্তি, কালী, তারা, মহাবিদ্যা প্রভৃতি নাম-বিশেষণে বিশেষিত হইয় আছেন। পার্থক্য -এই মাত্র ; নচেৎ মূল বিষয়ে কোনই অনৈক্য নাই। তন্ত্রের মূলও—বেদ ; তন্ত্ৰ—বেদের শাখা-বিশেষ । অথৰ্ব্ববেদে যে মন্ত্রাদি বাজরূপে পরিবৃশুমান ছিল, তন্ত্রে তাহাই মুকুলিত ও পল্পবিত। স্বষ্টি, প্রলয়, দেব-পূজা, মন্ত্র-নির্ণয়, আশ্ৰম-ধৰ্ম্ম, তীর্থ-মাহাত্ম্য প্রভৃতি—তন্ত্রের আলোচ্য। তন্থের সংখ্যা – অসংখ্য । আগমতত্ত্ব-বিলাসে নাল, যোগিণী, ভৈরবী, কুমারী, তারিণী প্রভৃতি । চতুর্ধিক ষষ্টিতম-সংখ্যক তন্ত্রের নাম লিখিত আছে। বারাহী-তন্ত্রের মধ্যে যোগডামর, শিবডমের, দুর্গাডমির, ব্রহ্মডামর ; আদি-যামল, ব্ৰহ্ম-যামল, বিষ্ণু-যামল, রুদ্র-যামল ; গৌতমী, আদ্যা, সরস্বতী, যোগিনী প্রভৃতি চতুর ধিক পঞ্চাশৎ-সংখ্যক তন্ত্রের নাম ও সেই সেই তন্ত্রের শ্লোক-সংখ্য উক্ত হইয়াছে। তন্ত্র-গ্রন্থের মধ্যে, আগমসার, আগমচন্দ্রিক, জ্ঞানসঙ্কলিনী তন্ত্র, শাক্তানন্দ তরঙ্গিণী, জ্ঞানানন্দতরঙ্গিণী, স্বরোদয়যামল প্রভৃতি তন্ত্র প্রসিদ্ধ। নিৰ্ব্বাণ নামধেয় তন্ত্রের মধ্যে নিৰ্ব্বাণ-তন্ত্র, মহানিৰ্ব্বাণ-তন্ত্র, রহন্নিধ্বণি তন্ত্র,—প্রধান স্থান অধিকার করিয়৷ আছে । তন্ত্রসার, তন্ত্রার্ণব, তন্ত্রকৌমুদী, উড়াশ, ডামর, তারা রহস্য, শুামারহস্য, কামাখাতন্ত্র, কুলার্ণব-তন্ত্র প্রভৃতি নামেও ভিন্ন ভিন্ন তন্ত্রের পরিচয় পাওয়া যায়। এতদ্ব্যতীত, বৌদ্ধদিগের ও প্রায় শত-সংখ্যক তন্ত্রের নামোল্লেখ দৃষ্ট হয় । তন্মধ্যে—বুদ্ধকপাল, নাগাৰ্জুন, মায়াজাল, তত্ত্বজ্ঞান-সিদ্ধি, সাধক-সংগ্ৰহ প্রভৃতি প্রসিদ্ধ। তন্ত্রে প্রাতঃকৃত্য, ভূতশুদ্ধি, মানবিধি, প্রাণায়াম, সন্ধ্যা, জপ, নিত্যপূঞ্জ, করাঙ্গ ও পঞ্চাঙ্গ-ষ্টাস, fববিধ মুদ্র। MBBBB BBB BBB BBS BBBBBS BBS BBS BBBBS BB BBB BBB অঙ্গস্থানীয়। তন্ত্ৰ-মতে,—প্রথমে গুরুগ্রহণ করিতে হইবে। গুরু যে বীজ-মন্ত্র প্রদান করিবেন, সেই মন্ত্র দ্বারা ভগবানের অৰ্চনা করা বিধেয় । নানা তন্ত্র অনুসারে নাম সম্প্রদায়ের স্বষ্টি হইয়াছে। তন্ত্র-শাস্ত্র চিরকাল গুহ্য-শাস্ত্র বলিয়া প্রচারিত ছিল ; সুতরাং উহ্যর প্রকৃত অর্থ অনেকেরই অনধিগম্য। এখন যে ভাবে তত্ত্ব-শাস্ত্রের ব্যাখ্য' হইয়া । থাকে, তাহা বীভৎস ও মুশিক্ষার অন্তরায়-সাধক। এমন কি, সেই সকল ব্যাখ্যায়, সময় সময় মনে হয়,—এরূপ শাস্ত্র কখনই মোক্ষ-সাধনের উপায় বলিয়। নির্দিষ্ট হইতে পারে ন। ব্যভিচার, মদ্যপান প্রভৃতির প্রাধান্ত-কীৰ্ত্তন যদি শাস্ত্রের লক্ষণ হয়, তাহ হইলে মনুষ্ঠকে অধঃপতনের পথে লইয়। যাইবার জন্য যে এই শার রচিত হইয়াছিল, তাই বুঝা যায়। চাৰ্ব্বাক্ষ-দর্শনের স্বচনায় আমরা যেমন দেখিয়াছি-দৈত্যগণকে ভ্রান্তপথে পরিচালিত করিবার জন্য, তাহাদের উচ্ছেদ-সাধন-কল্পে, দৰ্শন বিরচিত হয় ; তন্ত্ৰ-শারেরও কোনও কোনও স্থানের ব্যাখ্যা-দর্শনে আমাদের সেই কথা মনে হয়। পদ্ম-পুরাণে এবং শ্ৰীমদ্ভাগবতে প্রকারাস্তরে লিখিত আছে—শিব-শক্তির নাম করিয়া যাহার। সং । শাস্ত্রের প্রতিকুলাচারী হইবে, তাহারা পাষণ্ড । যদি তাহাই হয়, তাহ। হইলে তন্ত্রশান্ত্রকে BBDDBBB BBBBBBB BB BBB BBB BB BBSBBB BBB BBBB BBBS বলিয়া মনে হয় নায়ু কেবল উহার অর্থ-বিকৃতির জন্যই যত কিছু অমর্থের উৎপত্তি । হইয়াছে। নচেৎ তত্ত্ব-শাস্ত্র পঞ্চমই ব্যতিচারে ও মদ্যপানের প্রশ্রয় দেন নাই ; -