পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/২৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিংশ পৰিচ্ছেদ। মহাভারত । -- মহাভারত-পরিচয় ;–কুরু-পাণ্ডবের বিবরণ,-মহাভারতের সার-মৰ্ম্ম –কুরুক্ষেত্রের মহা-সময়,সংক্ষেপে যুদ্ধ-বৰ্ণনা –ধুতরাষ্ট্রের ভবিষ্য-দৰ্শন-চতুঃষষ্টি শ্লোকে মহাভারত-তত্ত্ব –ভিন্ন ভিন্ন গ্রন্থে BBBSBBBB BBBB StttBBB BB BBBBBB BBBD SiBBBBBB BBBBBBBS BBBBBBBB DD BBB BBS SBBBBB BBSBBBBB BBBBBBD S BBBBBBBS BB BB BB SDDBBBB gBBSBBSDDSBBBB BBB SDDBBBB BDDSB BBBS tteS BBBBBSSSBBBSS00 DBBB SBBBBBSBBBBB BBB BBS BBBBBBB S0 ভারতবর্ষের আর এক ইতিহাস—মহাভারত মহাকাব্য। কুরু-পাণ্ডবের যুদ্ধের পর, BBBBSBBB BBB BBBBB BB BBBBB BBBB BBS BBB S gBBDS KKBSBBBBB BBSBBBBB S BBBBS BBB BBB মারত। এই বিষয় এই ভাবে লিখিত আছে,—প্রথমতঃ উপাখ্যান-ভাগ পরিত্যাগ করিয়া চতুৰ্ব্বিংশতি সহস্ৰ শ্লোকে বেদব্যাস ভারত-সংহিতা রচনা করিয়ছিলেন । পণ্ডিতেরা সেই চতুৰ্ব্বিংশতি সহস্ৰ শ্লোককেই ভারত বলিয়া থাকেন। অতঃপর, সমুদায় পৰ্ব্ব-বৃত্তান্তের সার-সংগ্ৰহ-পূৰ্ব্বক সাৰ্দ্ধশত শ্লোকে তিনি অনুক্ৰমণিক অধ্যায় রচনা করেন । প্রথমতঃ আপন পুত্র শুকদেবকে এবং পরিশেষে উপযুক্ত শিষ্যগণকে বেদবাসি সেই ভারত-সংহিত। প্রদান করিয়াছিলেন। সেই সংহিতারচনার পর, তিনি ষষ্টি-লক্ষ-শ্লোকময়ী অপর এক সংহিতা প্রণয়ন করেন ; তাহার খ্রিংশত লক্ষ শ্লোক দেবলোকে, পঞ্চদশ লক্ষ শ্লোক পিতৃলোকে, চতুর্দশ লক্ষ শ্লোক গন্ধৰ্ব্বলোকে এবং এক লক্ষ মৰ্ত্ত্যলোকে প্রতিষ্ঠিত হয়। ব্যাস-শিস্য বৈশম্পায়ন জন্মেজয়ের সর্প সত্রে সেই লক্ষ শ্লোকাস্ত্রক ভারত-সংহিত কীৰ্ত্তন করিয়াছিলেন। তাহাই এখন মহাভারত নামে সৃদ্ধ। এই মহাভারত অষ্টাদশ পর্কে বিভক্ত –আদি, সভা, বন, বিরাট, উদ্যোগ, তথ্য দ্ৰোণ, কর্ণ, শল্য, সোপ্তিক, স্ত্রী, শান্তি, অনুশাসন, আশ্বমেৰিক, আশ্রম-বাসিক, মেীৰণ, মহাপ্রস্থানিক, স্বৰ্গারোহণ। এই পৰ্ব্ব-সমূহ আবার এক শত উপপর্কে বিভক্ত। আদিপর্বের দ্বিতীয় অধ্যায়ে, পৰ্ব্বসংগ্ৰহ পৰ্ব্বে, পৰ্ব্ব-উপপৰ্ব্ব-সমুহের বিবরণ এবং কোন পরে কি বিষয় লিখিত আছে,—তাহ সংক্ষেপে আলোচিত হইয়াছে। প্রতি পর্কের পোক-সংখ্যা এবং সংক্ষিপ্তসার, সেই পৰ্ব্বসংগ্ৰহ-পৰ্ব্বাধ্যায়ে দেখিতে পাওয়া খায়। কয়েকখানি মহাপুরাণের পূৰ্ব্বে এবং কয়েকখানি মহাপুরাণের পরে যে মহাভারত বচিত হইয়াছিল, পুরাণাদির সহিত মহাভারতের আলোচনায় তাহ বোধ-গম্য হয়। *"ভাগবতে (প্রথম ও তৃতীয় অধ্যায়ে) স্পষ্টই লিখিত আছে, মহাভারত রচনার পর বেদবাস শ্ৰীমদ্ভাগবত রচনা করেন। পদ্ম-পুরাণ পাতাল খণ্ডে (সপ্ততিতম অধ্যায়ে ) দেখিতে