পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/৪৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অন্যান্য নৃপতিগণ। sos হইতে উপদেশ দিলেন। পরিশেষে সেই খঙ্গীয় অশ্বের অনুসরণে তিনি অল্প দেশে গমন করিলেন। নানা স্থান পৰ্য্যটন করিয়া, অশ্ব—মগধ-দেশে উপনীত হইল। সেখানে সহদেব-তনয় মেঘসন্ধি যজ্ঞাথ বন্ধন করিলেন। সব্যসাচীকে পুনরায় যুদ্ধে প্রবৃত্ত হইতে হইল। সে যুদ্ধে অর্জুন জয়লাভ করিলেন। তখন, মগধ-রাজকেও অশ্বমেধ যজ্ঞে উপস্থিত হইবার জন্য আমন্ত্রণ করা হইল। তৎপরে বীরবর ফাল্গুনী, ক্রমশঃ সমুদ্র-তীর দিয়া, বঙ্গ, পুঞ্জ, কোশল প্রভৃতি দেশে গমন করিলেন। সেখান হইতে দক্ষিণ-দেশে গমন করতঃ অশ্ব চেদি-দেশে উপনীত হইল। তৎপরে হার কাণী, অঙ্গ, কোশল, কিরাত ও তঙ্গন-দেশে উপনীত হইলেন। তাহারা দশার্ন-দেশে উপস্থিত হইলে, তত্ৰত্য চিত্রাঙ্গদ বাধা-প্রদানের উদ্যোগ করিতে লাগিলেন। চিত্রাঙ্গদ বীভূত হইলে, অশ্ব নিষাদ-রাজ একলব্যের রাজ্যে উপস্থিত হইল। একলব্য-স্থত যজ্ঞশ্ব বন্ধন করিলে, সেখানে রোমহর্ষণ তুমুল সংগ্রাম চলিয়াছিল। কিন্তু সেখানেও অর্জুন জয়লাভ করিলেন । ইহার পর, সুরাষ্ট্র, গোকর্ণদেশ ও প্রভাস অতিক্রম করিয়া, অশ্ব দ্বারবর্তী-নগরে উপনীত হইল। কৃষ্ণান্ধক-পতি উগ্রসেন গীতি-পূর্বক অর্জুনের অভ্যর্থনা করিলেন। সেখান হইতে সমুদ্রের পশ্চিম-প্রদেশে বিচরণ করিয়া, অশ্ব পঞ্চনদ-প্রদেশে উপনীত হয় । তৎপরে গান্ধার-রাজ্যে শকুনি-পুত্রের সহিত সব্যসাচীর তুমুল সংগ্রাম উপস্থিত হইয়াছিল। গান্ধার-রাজ-পুল, অর্জুনের সহিত যুদ্ধে পরাজিত হইয়া, পৃষ্ঠ-প্রদর্শন করিয়াছিলেন। পরিশেষে তাহাকে আহবান করিয়া, অভয় দিয়া, যজ্ঞশ্ব-সহ ধনঞ্জয় হস্তিনাপুরে প্রত্যাবৃত্ত হন। পাণ্ডবগণের দিগ্বিজয় সম্বন্ধে মহাভারতে যে যে দেশের যে যে নৃপতির প্রসঙ্গ উত্থাপিত হইয়াছে, জৈমিনি-ভারতে এবং অন্যান্ত গ্রন্থে তদ্ভিন্ন আরও কতকগুলি দেশের ও রাজার বিবরণ প্রাপ্ত হওয়া যায় । সেই সকল রাজগণের BBB BBB BSBB BBBBB BBB BBB BBB BBBBB S BBBBBB BBB নাম—জন । পুত্র-প্রবীর । পাণ্ডবগণের যজ্ঞাখ মাহিমতী-পুরীতে উপনীত হইলে, নীল ধ্বজ পুল প্রবীর সেই অশ্ব বন্ধন করেন। অর্জুনের সহিত র্তাহার যুদ্ধ আরম্ভ হয় । নীলধ্বজ রাজা কৃষ্ণভক্ত ছিলেন । পণ্ডিবগণের সহিত যুদ্ধ করিবার তাহার আদৌ ইচ্ছা ছিল না । কিন্তু নীলধ্বজ-পত্নী জন বিনা गूढ़ गङौञ्च अश्व প্রত্যপণ করা অপমান-জনক মনে করিয়া, পুত্র প্রবীরকে যুদ্ধে উৎসাহিত করিলেন। কুমার প্রবীর, মহাদেবেব বরে, , অদ্বিতীয় শক্তিশালী হইয়াছিলেন। সুতরাং যুদ্ধ আরম্ভ হইলে তিনি অর্জুনকে বিব্রত করিয়৷ তুলিলেম । পরিশেষে, গ্রীকৃষ্ণের সহায়তায়, অশেষ কৌশলে, সে যুদ্ধে পাণ্ডবপক্ষের জয়লাভ হয় ; প্রবীর নিহত হন। তখন রাজা নীলধ্বজ, জামাতা (কঙ্ক স্বাহার পতি) অগ্নিদেবের পরামর্শ অনুসারে সন্ধি-স্থাপনে অগ্রসর হন। কিন্তু জনা কিছুতেই সন্ধি স্থাপনে সম্মত হন না ; পরস্তু পুল-হত্যার প্রতিশোধ গ্রহণে, পুত্র-হস্তার মস্তক ছেদনে । উত্তেজিত হন । নীলধ্বজ যুদ্ধে প্রবৃত্ত না হইলেও, জন। আপনিই রণরঙ্গিণী মূৰ্ত্তিতে । যুদ্ধক্ষেত্রে গমন করেন। তাহার তেজোগৰ্ব্বে, পাওব-সৈন্য ভয়-বিহ্বল হয়। পাণ্ডব: পক্ষীয় বহু সৈন্য হতাহত হওয়ার পর, ফ্রকৃষ্ণের কৌশলে পাণ্ডবগণ জয়লাভ করেন। . i DDBS BBBB DDBB DDS BBBSBBB BBSBBBBB DDS BBBBBS