পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/৪৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8、e - ভারতবর্ষ । অশ্বমেধ যজ্ঞের অশ্ব ষে ষে স্থানে-যে যে রাজ্যে উপনীত বা বাধা-প্রাপ্ত হইয়াছিল, সে সকল রাজ্যের রাজতবর্গের কয় জনের পরিচয় বংশ-লতায় দৃষ্ট হয় ? প্রসঙ্গতঃ, কৰ্ম্মকৰ্ম্মের ফলাফলের দৃষ্টাস্ত-স্বরূপ, মহাভারতে আরও বহু নৃপতির নামোল্লেখ দেখিতে পাই । খাগুব-দাহন প্রসঙ্গে, বৈশম্পায়ন, জনমেজয়ের নিকট শ্বেতকি রাজার উপাখ্যান কীৰ্ত্তন করিতেছেন। তিনি বলিতেছেন,—“পুৰ্ব্ব-কালে বলবিক্ৰম-সম্পন্ন মহেন্দ্র-সদৃশ শ্বেতকি নামে বিখ্যাত এক ভূপতি ছিলেন। সেই ধীমান অবনী-পতি ঋত্বিক-গণের সহিত সুদীর্ঘ-কাল যাগ অনুষ্ঠান করিলে, ঋত্বিকগণ, ধূম-ব্যাকুলিত-লোচন এবং ক্ষিয় হইয়া, সেই নরাধিপকে পরিত্যাগ করিলেন। ব্রাহ্মণ অভাবে যঙ্গ-কাৰ্য্য পণ্ড হয় দেখিয়া, ভূপতি শূলপাণির শরণাপন্ন হন। দ্বাদশ বর্ষ ব্রহ্মচাৰ্য্যাবলম্বনে রুদ্রদেবের প্রতি-সাধন করিলে, তদংশ-সস্তৃত দুৰ্ব্বাস ঋষির দ্বারা শ্বেতকি যজ্ঞ-কাৰ্য্য সম্পন্ন করেন। সেই যজ্ঞে অপরিমিত হব্যপানে হুতাশনের গ্লানি বোধ হয় । খাণ্ডব-বন ভস্মসাৎ করিয়া, তিনি সেই গ্লানি নিবারণ করেন।” যুধি র ব্রাহ্মণ-মাহাত্ম্য শুনিতে চাহিলে, মার্কণ্ডেয় ঋষি অযোধ্যার এক নৃপতি-বংশের নামোল্লেখ করিয়াছিলেন । তিনি বলিয়াছিলেন,—“অযোধ্যাতে ইক্ষাকু-কুলনন্দন পরীক্ষিং নামে এক রাজ ছিলেন। র্তাহার তিন পুল্ল,—শল, দল ও বল । রাজা পরীক্ষিং শল নামক রাজকুমারকে যথাসময়ে রাজ্যাভিষিক্ত করিয়া, সন্ন্যাসাশ্রম অবলম্বন করেন।” শলের পুত্রের নাম- সেনজিৎ । পরীক্ষিত মৃগয়ায় গমন করিয়া, এক রমণীয় সরোবর-তীরে রূপৰতী সুদৃশু কন্যার রূপ-মোহে মুগ্ধ হন। সুন্দরী গান করিতে করিতে পুষ্প-চয়ন করিতেছিল। রাজ তাহার পাণিগ্রহণ করেন। সর্ত হয়—সেই সুন্দরীকে কখনও রাজ। সলিল-সন্দর্শন করাইবেন না । কিন্তু সেই রমণীয় উদ্ধানে বিহার করিতে করিতে, এক দিন রাজা সহসা তৃষ্ণাতুর হন । তৃষ্ণাতুর হইয়া, সুধীসম স্নিগ্ধ-সলিল-পূর্ণ বাপী-তটে উপস্থিত হইলে, সুন্দরী সেই জলে অভৃগু হইলেন । সরোবরের জল সেচন করিয়া, রাজা সুন্দরীর উদ্ধারের চেষ্টা পাইলেন। কিন্তু তাহার সে চেষ্ট। ব্যর্থ হইল। তখন সুন্দরীর পরিবর্তে এক মধুক মাত্র তাহার দৃষ্টিগোচর হইলে, রাজা মধুক-বধে উদ্যোগী হইলেন। পরীক্ষিৎ-সমীপে উপনীত হইয়া, মধুক-রাজ মধুকগণের প্রাণ ভিক্ষ চাহিল ; জানাইল,—সুন্দরী তাহারই কন্যা ; নাম—মুশোভন । এই বলিয়া মধুক-রাজ, পরীক্ষিতের হস্তে সুশোভনাকে প্রদান করিল। সেই সুশোভনার গর্ত্তে রাজার পূৰ্ব্বোক্ত তিন পুত্র জন্মগ্রহণ করেন । রাঙ্গ পরীক্ষিং সংসারাশ্রম পরিত্যাগ করিলে, জ্যেষ্ঠ পুত্র শল, এক দিম মৃগয়ায় গমন করেন। কিন্তু কোন-ক্রমেই সে দিন মৃগ গ্রহণ করিতে পারেন না। সারথির নিকট রাজা অবগত ৰন,—‘ৰামদেবের দুইটা অশ্ব আছে। সেই অশ্বদ্বয়ের নাম—বামী-অশ্ব। সেই অর্থে রথ সংবাহিত হইলে, মৃগ অনায়াসে করতলগত হইবে । নৃপতির প্রার্থনা-অনুসারে বামদেব সেই অশ্ব-যুগল রাঙ্গাকে প্রদান করেন। মৃগ স্থত হইলে, রাজা তাহাকে অশ্বস্বয় প্রত্যপূর্ণ করিতে সক্ষত হন। মৃগ স্থত হইল ; রাজ কিন্তু অশ্ব প্রত্যপণ করিলেন না। পরম্ভ, বামদেব BB BBBB BBBS BBB BB BBB BBS BBBBB BBB BBB BB BBB করিলেন।” ৰামদেব তাংশ্লেঙ্গতিসম্পাত দিলেন,-“সেনজিং নামে তোমার দশমবর্ষীয় {్య శ్రీ প্রসঙ্গে জ্ঞ নৃপত্তিগণ ।