পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


go - ভারতবর্ষ। মুসলমান সে দেশে গিয়া নিশ্চয় বসবাস করিয়াছিলেন। ইংরেজও যখন যে দেশে আধিপত্যবিস্তার করিয়াছেন, সে দেশেরও কতক লোক খৃষ্টান হুইয়া গিয়াছে —অন্ততঃ কতক খৃষ্টান পে দেশে গিয়া বসবাস করিয়াছেন। এ কথা প্রমাণ করিবার জন্য, অৰিক আলোচনার জাৰগুক হয় না। এক ভারতবর্ষের ইতিহাসের প্রতি বৃষ্টিপাত করিলেই, এ তথ্য অবগত হওয়া যায় । ইহাই মন্থয্যের প্রকৃতি। আর্য্য-হিন্দুগণ যখন দেশে-বিদেশে রাজ্য-বিস্তার করেন, তখন র্তাহাদের অনেকে যে সেই সেই দেশে বসবাস করিয়াছিলেন, তাহা বলাই বাহুল্য। স্থতরাং রাজধৰ্ম্ম-ৰূপে তত্ত্বদেশে হিন্দু-ধৰ্ম্মের প্রভাব বিস্তৃত হওয়া কখনই অসম্ভব নহে । আর তজ্জন্যই আর্য-হিন্দু-ধর্মের শেষ-স্মৃতি অনেক প্রাচীন জাতির মধ্যে দেখিতে পাওয়া খায় । এই যে দেখিতে পাই,—প্রাচীন পারসীকগণ অগ্নি-পূজক ছিলেন ; তাহাই বা কি ? র্তাহাদেৱ সেই অগ্নি-পূজা-বৈদিক যাগযজ্ঞেরই অমুস্থতি নহে কি ? আরবে, তুরস্কে, এলিয়া মাইনরে এবং অন্যাঙ্গ স্থানে হিন্দুদিগের আধিপত্য-বিস্তৃতির সঙ্গে সঙ্গে তাহাদের খে প্রভাব বিস্তৃত হইয়া পড়িয়াছিল, ইতিহাসে কত দিন পর্য্যন্ত তাহা দেখিয়া আসিয়াছি। কোম্ম দেশে লে পরিচয় বিদ্যমান নাই ? ইউরোপে, আমেরিকায়, আফ্রিকায়—যেদিকেই বৃষ্টিপাত করি, সেইদিকেই সে স্মৃতি ওতঃপ্রোত বিজড়িত আছে। প্রাচীন গ্রীস, প্রাচীন রোম, প্রাচীন মিশর,—যে সকল দেবদেবীর পূজা করিতেন, তাহার অধিকাংশই ভারতস্বর্ষের দেবদেবীর রূপান্তর মাত্র। স্থান-ভেদে, কাল-ভেদে, উচ্চারণ-ভেদে, কোথাও কোথাও নামের পরিবর্তন সাধিত হইয়াছে ; কোথাও কোথাও উপাসন-প্রণালী বিকৃত হইয়। পিয়াছে। কাল-ধৰ্ম্মে একই দেণে কত পরিবর্তন সাধিত হয় ! প্রদেশ-ভেদেও একই দেশে উচ্চারণের কত পার্থক্য দেখিতে পাই ! এই বাঙ্গালীরই বিভিন্ন-প্রদেশে, জলবায়ুর তারতম্য-হেতু, একই শব্দের উচ্চারণে কত রূপাত্তর ঘটিয়া থাকে ! সে হিসাবে, চট্টগ্রামের সহিত বিক্রমপুরের এৰং বিক্রমপুরের সহিত নবদ্বীপের উচ্চারণে এতই তারতম্য দেখা যায় যে, একই শব্দ, উচ্চারণগত পার্থক্যে, অন্য শব্দ বলিয়। প্রতীয়মান হয় । একই দেশে, একই সময়ে, যখন এতাদৃশ পার্থক্য বিদ্যমান ; তখন, কোন দূর অতীতের, কোন দুর-দেশে, কিরূপ উচ্চারণ-পার্থক্য হওয়া সম্ভবপর,—সহজেই বুঝা যায় না কি ? পুতরাং আমাদের ‘অগ্নি’, লাটনে ইঞ্জি’, প্লাতোনিকে ‘ওপ্পি'-রূপে পরিবর্তিত হইবে, তাহাতে আর আশ্চৰ্য্য কি ? যুগের পর যুগ চলিয়া গিয়াছে ; পরিবর্তনের পর পরিবর্তনের স্মধাবীতে সকল পরিচয়-চিহ্ন ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হইয়। গিয়াছে ; কিন্তু তথাপি যাহ অবশিষ্টআছে, তাছাই কি উপেক্ষার সামগ্ৰী ! গভীর জলধির অতল তলে প্রবেশ করিয়া অৰগান্থনকারী ব্যক্তি গুক্তির সন্ধান লাভ করে ; জ্যেতির্কিদূ-গণ দূরবীক্ষণ সাহায্যে জ্যোতিষ্ক-মণ্ডলীর স্বগ্ন-তত্ত্ব আবিষ্কার করেন ; ঐকান্তিকতার সহিত শাস্ত্র-সমুদ্র মন্থন । করিলে, সকল বিষয়েরই স্বরূপ-তত্ত্ব অধিগত হয়। তখন, বুঝিতে পারা যায়,~সকল স্বশ্বের সার-সামগ্রী এক, এবং সেই সামগ্ৰী বেদের মধ্যেই নিহিত আছে। - مهم باستان است.