পাতা:পৃথিবীর ইতিহাস - প্রথম খণ্ড (দুর্গাদাস লাহিড়ী).pdf/৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শুনঃশেপকে বলি দিবার ব্যবস্থা করেন। শুনঃশেপ দেবগণের স্তুতি করিয়া যুক্তিলাভ করিয়া ছিলেন।” রামায়ণ, বিষ্ণুপুরাণ, শ্ৰীমদ্ভগবৎ প্রভৃতিতেও শুনঃশেপের কাহিনী বৰ্ণিত আছে । রামায়ণে দেখিতে পাওয়া যায়,- “ৰ্তাহার পিতার নাম ঋচীক এবং অযোধ্যার অধিপতির নিকট তিনি বিক্রীত হইয়াছিলেন । কিন্তু বিশ্বামিত্রের পরামর্শে, দেবগণের স্তোত্র পাঠ করায়, তাহার জীবন রক্ষা হয়।” ঐতরেয় ব্রাহ্মণ, সম্ভবতঃ ঋগ্বেদের একটা হুক্ত অবলম্বন করিয়া, গুনঃশেপকে বলি দিবার উপাখ্যান রচনা করিয়াছিলেন ; এবং তাহার পর, ক্রমশঃ তাহ অধিকতর পল্পবিত হইয়া নানা আকারে বিস্তৃত হইয়া পড়িয়াছে। aBB BSBB BBB BBBB BBSg BB DBB BBB BBBB BBBS BBBBBBB প্রসঙ্গ উল্লেখ করিয়া তাহারা আপনাদের উদ্দেশ্য-সিদ্ধির চেষ্টা পান। সায়ণাচার্য্যের ভাষ্যই ঐ মত পরিপোষণে র্তাহাদের প্রধান অবলম্বন । কিন্তু সায়ণাচাৰ্য্য কোথা হইতে ঐ সিদ্ধান্তে উপনীত হইয়াছিলেন, কিছুতেই তাহা বুঝিতে পারা যায় না। বেদে কোথাও মরবলির কথা নাই ; পরস্তু প্রথম মণ্ডলের চতুৰ্ব্বিংশ স্থক্তে শুনঃশেপ যেখানে অগ্নি । প্রভৃতি দেবতার স্তুতিগান করিতেছেন, সেখানেও কোনক্রমে তাহার বলির প্রসঙ্গ । উঠিতে পারে না। হুক্তটা পড়িলে, স্পষ্টই বুঝিতে পারা যায়,-“তিনি পৃথিবীর বন্ধন হইতে মুক্তি পাইবার জন্য দেবগণের স্তুতি করিতেছিলেন। শতপথ ব্রাহ্মণে রাজর্ষি জনকের উল্লেখ প্রথম দেখিতে পাওয়া যায় ; বিদেহ-রাজ্য এবং কোশল-রাজ্যের সমৃদ্ধির জাভাসও প্রথম প্রাপ্ত হই। ব্রাহ্মণের পরই আরণ্যক । সংসারাশ্রম পরিত্যাগ করিয়া অরণ্যে সন্ন্যাসাশ্রমে গিয়া বেদ-পাঠের আবশুকতা আরণ্যকে প্রতিপন্ন হয়। আরণ্যক— ব্রাহ্মণের উপসংহার ভাগ। সায়ণের ব্যাখ্যায় জানা যায়,-গৃহস্থের যজ্ঞাদি কৰ্ম্মের DYSBBB S BBBBS sBDBB SBBB BBBB BBBBBB DY BBBB SBBBBBS আবখ্যক । কিরূপ আচার-সম্পন্ন হইলে কিরূপে ব্ৰহ্মজ্ঞান লাভ হইতে পারে এবং ব্ৰহ্মই বা কি,—আরণ্যকে তাহারই মূল-তত্ত্ব নিহিত আছে। বেদ-পাঠ শেষ কপ্লিয়া আরণ্যক অধ্যয়ন করিতে হয়,—মহর্ষি মন্ত্র এইরূপ উপদেশ দিয়া গিয়াছেন । যাজ্ঞবল্ক্য বলেন,— SDDBB BB BBB BBB BBDSBBBS BBBB BBB BBB BBSBB অধ্যয়ন করুন।” * প্রত্যেক ব্রাহ্মণের একখানি করিয়া আরণ্যক’ আছে ; ঋগ্বেদের যেমন দুই খানি ব্রাহ্মণ, তেমনি দুই খানি আরণ্যক—কৌৰীতকী ও ঐতরেয় । কৃষ্ণ স্বজুৰ্ব্বেদের তৈক্তিরীয় ব্রাহ্মণের তৈত্তিরীয় আরণ্যক, শুক্ল যজুৰ্ব্বেদের শতপথ ব্রাহ্মণের আরণ্যকের নাম বৃহদারণ্যক । সামবেদ এবং অথর্ববেদের আরণ্যক নাই অথবা এখন আর পাওয়া যায় না। ঐতরেয় আরণ্যকে ঋগ্বেদের প্রত্যেক ঋষির পরিচয় আছে। ঐতরেয় আরণ্যকেই ঋগ্বেদের স্বজ্ঞ, পদ, পদাংশ, শব্দ, শব্দাংশ প্রভৃতির সংখ্যা-নির্ণয় দেখিতে পাই । শুক্ল যজুৰ্ব্বেদের অন্তর্গত তৈভিরীয় ব্রাহ্মণে অাৰ্য্য-হিন্দুগণের দাহ-সৎকায়প্রথা বর্ণিত আছে। তৎপূৰ্ব্বে কোথাও কোথাও অস্থি ও চিতাভষ্ম মৃত্তিক প্রোথিত হইত,— এরূপও প্রমাণ পাওয়া বাস্থ। । . ...,' S SDDDDDDS DDD DDDS BBB BB BB BBBBBDDD DDD DBBSBDD DS