পাতা:প্রকৃতির প্রতিশোধ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দশম দৃশ্য গুহার বাহিরে সন্ন্যাসী । আহ একি চারি দিকে প্রভাতবিকাশ ! এ জগৎ মিথ্যা নয়, বুঝি সত্য হবে, মিথ্যা হয়ে প্রকাশিছে আমাদের চোখে । অসীম হতেছে ব্যক্ত সীমারূপ ধরি। যাহা কিছু, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অনন্ত সকলি ! বালুকার কণা সেও অসীম অপার, তারি মধ্যে বাধা আছে অনন্ত আকাশ— কে আছে, কে পারে তারে আয়ত্ত করিতে ! বড়ো ছোটো কিছু নাই, সকলি মহৎ । আঁখি মুদে জগতেরে বাহিরে ফেলিয়া অসীমের অন্বেষণে কোথা গিয়েছিনু ! সীমা তো কোথাও নাই— সীমা সে তো ভ্ৰম । ভালো করে পড়িব এ জগতের লেখা, শুধু এ অক্ষর দেখে করিব না ঘৃণা । লোক হতে লোকান্তরে ভ্ৰমিতে ভ্ৰমিতে, একে একে জগতের পৃষ্ঠা উলটিয়া, ক্রমে যুগে যুগে হবে জ্ঞানের বিস্তার। বিশ্বের যথার্থ রূপ কে পায় দেখিতে । অঁাখি মেলি চারি দিকে করিব ভ্রমণ, ভালোবেসে চাহিব এ জগতের পানে, তবে তো দেখিতে পাব স্বরূপ ইহার । দুইজন পথিকের প্রবেশ প্রথম । আর কত দূরে যাবি, ফিরে যা রে ভাই ! আয় ভাই, এইখানে কোলাকুলি করি। \○○。 S 0 $ 0