পাতা:প্রবন্ধ পুস্তক-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১২৮ প্রাচীন ভারতবর্ষের রাজনীতি। আত্মীয়লোক হইতে তাহাদিগকে, এবং পরস্পর হইতে পরম্পরকে রক্ষা করিয়া থাকেন ?” তাহার পর বজেট ও এষ্টিমেটের কথা— “আয় ব্যয় নিযুক্ত গণক ও লেখকবর্গ আপনার আয় সকল পূৰ্ব্বাহ্নে ত নিরুপণ করিতেছে ?” আমরা জানিতাম এটা তারতবর্ষে উইলসন সাহেবের স্বষ্টি ; কিন্তু তাহা নহে। श्रु“রাজ্যস্থ কৃষকেরা ত সস্তুষ্টচিত্তে কালযাপন করিতেছে ?” এই কথা, নারদ যেমন যুধিষ্ঠিরকে জিজ্ঞাসা করিয়াছিলেন, আমরা তেমনি ভারতীয় রাজপ্রতিনিধিকে জিজ্ঞাসা করি। অনেকের বোধ আছে, “ইরিগেশ্যন ডিপার্টমেণ্ট’ট ভারতবর্ষে একট নৃতন কাও দেখাইতেছে। তাহা নহে। নারদ বলিতেছেন--- “ রাজ্যমধ্যে স্থানে স্থানে সলিলপূর্ণ বৃহৎ বৃহৎ তড়াগ ও সরোবর সকল ত নিখাত হইয়াছে ? কৃষিকাৰ্য্য ত বৃষ্টিনিরপেক্ষ হইয়া সম্পন্ন হইতেছে ?” একথা ইংরেজদিগের মনে থাকিলে উড়িষ্যাদিতে দুর্ভিক্ষ ঘটিত না । নিম্নলিখিত বাক্যটির প্রতি ব্রিটিশ গবর্ণমেণ্ট মনোযোগ করিলে আমাদিগের বিবেচনায় ভাল হয় । “কৃষকদিগের গৃহে বীজও অন্নাদির ত অসদ্ভাব নাই ? আবশ্যক হইলে ত পাদিক বৃদ্ধিতে অনুগ্রহ স্বরূপ শত সংখ্যক ঋণ দান করিয়া থাকেন ?” এক্ষণে এই নিয়মের অভাবে এ দেশের কৃষকের মহাজনের নিকট বিক্রীত। মহাজনের নিকটেও সকলে সকল সময়ে পায়