পাতা:প্রবন্ধ পুস্তক-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


: ভালবাসার অত্যাচার। ילל মনুষ্যের প্রয়োজনে। জড়পদার্থেকে আয়ত্ত না করিতে পারিলে মনুষ্যজীধন নিৰ্ব্বাহ হয় না, এজন্য বাহুবলের প্রয়োজন। এবং সেই জনাই বাহুবলের অত্যাচায়ও আছে। বাহুবলের ফল বৃদ্ধি করিবার জন্য, সমাজের প্রয়োজন ; এবং সমাজের অত্যাচারও সঙ্গে সঙ্গে। যেমন পরস্পরে সমাজবন্ধনে বদ্ধ না হইলে, মনুষ্যজীবনের উদ্দেশ্য সুসম্পন্ন হয় না, তেমনি পরস্পরে আন্তরিক বন্ধনে বদ্ধ না হটলে, মনুষ্যজীবনের সুনিবাঙ্ক হয় না। অতএব সমাজের যেরূপ প্রয়োজন, প্রণয়েরও তদ্রুপ বা ততোধিক প্রয়োজন । এবং বাহুবলের বা সমাজের অত্যাচার আছে বলিরাই যেমন বাহুবল বা সমাজ সমুষের ত্যাজ্য বা অনাদরণীয় হইতে পারে না, প্রণয়ের অত্যাচার আছে বলিয়ই তাহাও ত্যাজ্য বা অনাদরণীয় হইতে পারে না । অপিচ যেমন বাহুবল বা সমাজবলকে অত্যাচারী দেখিয়। তাছাকে পরিত্যক্ত বা অনাদৃত না করিয়া, মনুষ্য, ধৰ্ম্মের দ্বার। তাছার শমতার চেষ্ট পাইয়াছে, প্রণয়ের অত্যাচারও সেইরূপ ধৰ্ম্মের দ্বারা শমিত করিতে যত্নকর কর্তব্য। ধৰ্ম্মেরও অত্যাচার আছে বটে, এবং ধৰ্ম্মের অত্যাচার শমতার জন্য যদি আরও কোন শক্তি প্রযুক্ত হয়, তাহারও অত্যাচার ঘটবে, কেননা অত্যাচার শক্তির স্বভাবসিদ্ধ। যদি ধৰ্ম্মের অত্যাচার শমতায় সক্ষম কোন শক্তি থাকে, তবে জ্ঞান সেই শক্তি । কিন্তু জ্ঞানেরও অত্যাচার অাছে। তাছার উদাহরণ, হিতবাদ এবং প্রত্যক্ষবাদ। এতদুভয়ের বেথে মনুষ্যহৃদয়সাগরে অনল্প ভাগ চড়া পড়ির যাইতেছে। বোধ হয় জ্ঞান ব্যতীত ওনের অত্যাচার শাসনের জন্য অন্য কোন শক্তি যে মনুষ্যকর্তৃক ব্যবহৃত হইবে, এক্ষণে এমন বিবেচনা হয় না। সেইরূপ ইহাও বলা যাইতে পারে, যে প্রণয়ের দ্বারাই