পাতা:প্রবন্ধ পুস্তক-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৪৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


wo& জ্ঞান । সাদৃশ্য দেখা গিয়াছে, তেমনি বেদান্তের মায়াবাদের সঙ্গে কান্তের এই প্রত্যক্ষ প্রতিবাদের সাদৃশ্য দেখা যায়। আধাকি তত্বে প্রাচীন আর্যগণ কর্তৃক স্বচিত হয় নাই, এমত তত্ত্ব অল্পই ইউরোপে আবিষ্কৃত হইয়াছে। কান্তীয় আস্তান্তরিক মতের গ্রধানতম প্রতিদ্বন্দী জন ষ্টুয়ার্ট মিল । তিনি কার্যকারণসম্বন্ধের নিত্যত্বের উপর নির্ভর করেন । তিনি বলেন যে আমরা প্রত্যক্ষের দ্বারা একটী অকাটা সংস্কার এই লাভ করিয়াছি, যে যেখানে কারণ বৰ্ত্তমান আছে সেই থানেই তাহার কার্য বর্তমান থাকিবে। যেখানে পূৰ্ব্বে দেখিয়াছি যে ক বর্তমান আছে, সেইখানে দেখিয়ছি যে খ আছে। পুনৰ্ব্বার যদি কোথাও ক দেখি, তবে আমরা জানতে পারি যে থও এখানে আছে, কেন মা আমরা প্রত্যক্ষের দ্বারা জানিয়াছি যেখানে কারণ থাকে সেষ্ট খানেই তাঙ্গর বর্গ থাকে। সমানান্তয়ালত কারণ, এবং সংমিলনবিরক্ত তাহার কার্যা, কেন না আমরা যেখানে বেখানে সমানান্তয়ালত প্রত্যক্ষ করিয়াছি, সেইখানে সেই থানে দেখিয়াছি মিল হয় নাই, অতএব সমানান্তরালভা, স’মিলনবিরহের নিয়ত পূৰ্ব্ববর্তী। কাজেই আমরা জানিতেছি যে যখন যেখানে দুইট সমানান্তরাল রেখা থাকিবে, সেই থানেই আর তাহাদিগেয় মিলন হইবে না । অতএব এ জ্ঞানও গ্রত্যক্ষমূলক । শেষ মন্ত, হর্বটম্পেন্সরের। তিনিও প্রত্যক্ষবাদী, কিন্তু তিনি বলেন যে এই প্রত্যক্ষমূলক জ্ঞান সকলটুকু আমাদিগের নিজ প্রত্যক্ষজাত নহে। প্রত্যক্ষজাত সংস্কায় পুরুষানুক্রমে প্রাপ্ত হওয়া যায়। আমার পূৰ্ব্বপুরুষদিগের যে গ্রত্যক্ষজাত সংস্কার, আমি তাহ কিয়দংশে প্রাপ্ত হইয়াছি। আমি ষে সেই সকল সংস্কার লইয়া জন্মিয়াছি এমত নহে-তাহ হইলে