পাতা:বঙ্কিমচন্দ্রের উপন্যাস গ্রন্থাবলী (প্রথম ভাগ).djvu/২২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনেক চিন্তায় ব্যস্ত আছেন যথার্থ, কিন্তু হিন্দুস্থানে যবনরাজা একেশ্বর হইবেন, অন্ত রাজার নামমাত্র আমরা রাখিব না। কিন্তু আপনাকে গৌড়ে শাসনকর্তা করিব । যেমন দিল্লীতে মহম্মদ ঘোরির প্রতিনিধি কুতুবউদ্দীন, যেমন পূৰ্ব্বদেশে কুতুবউদ্দীনের প্রতিনিধি বখতিয়ার খিলিজি, তেমনই গোঁড়ে আপনি বখতিয়ারের প্রতিনিধি হইবেন । আপনি ইহাতে স্বীকৃত আছন কি না ? পশুপতি কহিলেন, “আমি ইহাতে সম্মত হইলাম।” ম। ভাল ; কিন্তু আমাৱ আর এক কথা জিজ্ঞাস্ত আছে । আপনি ষাহ অঙ্গীকার করিতেছেন, তাহা সাধন করিতে আপনার ক্ষমতা কি ? প। আমার অনুমতি ব্যতীত একটি পদাতিকও যুদ্ধ করিবে না। রাজকোষ আমার অনুচরের হস্তে । আমার আদেশ ব্যতীত যুদ্ধের উদ্যোগে একটি কড়াও খরচ হুইবে না। পাচ জন অনুচর লইয়া খিলিজিকে রাজপুর প্রবেশ করিতে বলিও, কেহ জিজ্ঞাসা করিবে না, কে তোমরা’ ?” ম। আরও এক কথা বাকি আছে । এই দেশে যবনের পরম শত্রু হেমচন্দ্র বাস করিতেছে । আজ রাত্রেই উহার মুণ্ড যবনশিবিরে প্রেরণ করিতে হইবে। প। আপনার আসিয়াই তাহ ছেদন করিবেন—আমি শরণাগতহত্যা-পাপ কেন স্বীকার করিব ? ম। আমাদিগের হইতে হইবে না। ষবনসমাগম শুনিবামাত্র সে ব্যক্তি নগর ত্যাগ করিয়া পলাইবে । আজি সে নিশ্চিন্ত আছে । আজি লোক পাঠাইয়া তাহাকে বধ করুন । প। ভাল, ইহাও স্বীকার করিলাম । ম। আমরা সন্তুষ্ট হইলাম । আমি আপনার উত্তর লইয়া চলিলাম । প। ষে আঙ্কে । আর একটা কথা জিজ্ঞাস্ত আছে । ম। কি, আজ্ঞা করুন । প। আমি ত রাজ্য আপনাদিগের হাতে দিব । পরে যদি আপনারা আমাকে বহিষ্কৃত করেন ? ম। আমরা আপনার কথায় নির্ভর করিয়া অল্পমাত্র সেন। লইয়া দূত-পরিচয়ে পুরপ্রবেশ করিব। তাহাতে যদি আমরা স্বীকার মত কাৰ্য্য না করি, আপনি সহজেই আমাদিগকে বহিষ্কৃত করিয়া দিৰেন । ૨6 . প। আর যদি আপনার অল্প সেনা লইয়া না আইসেন ? ম। তবে যুদ্ধ করিবেন।” এই বলিয়া মহম্মদ . আলি বিদায় হইল । সপ্তম পরিচ্ছেদ চেীরোদ্ধরণিক মহম্মদ আলি বাহির হইয়। দৃষ্টিপথাতীত হইলে, অন্ত এক জন গুপ্তদ্বার-নিকটে আসিয়া মৃদুস্বরে কহিল, “প্রবেশ করিব ?” পশুপতি কহিলেন, “কর ।” এক জন চেীরোদ্ধরণিক প্রবেশ করিল। সে প্রণত হইলে পশুপভি আশীৰ্ব্বাদ করিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “কেমন শাস্তুশীল ! মঙ্গল সংবাদ ত ?” চেীরোদ্ধরণিক কহিল, “আপনি একে একে প্রশ্ন করুন—অামি ক্রমে সকল সংবাদ নিবেদন করিতেছি ।” পশু । ষবনদিগের অবস্থিতিস্থানে গিয়াছিলে ? শান্ত । সেখানে কেহ যাইতে পারে না । পশু । কেন ? শান্ত । অতি নিবিড় বন, দুর্ভেদ্য । পশু । কুঠার হস্তে বৃক্ষচ্ছেদন করিতে করিতে গেলে না কেন ? শান্ত। ব্যাঘ্র ভল্লুকের দৌরাত্ম্য। পশু । সশস্ত্রে গেলে না কেন ? শান্ত । যে সকল কাঠুরিয়ারা ব্যাখ্র"ভল্লুক বধ করিয়া বনমধ্যে প্রবেশ করিয়াছিল, তাহারা সকলেই যবন-হস্তে প্রাণত্যাগ করিয়াছে—কেহই ফিরিয়া আইসে নাই । পশু । তুমিও না হয় না আসিতে ? শাস্ত । তাহা হইলে কে আসিয়া আপনাকে সংবাদ দিত ? পশুপতি হাসিয়া কহিলেন, “তুমিই আসিতে ” শান্তশীল প্রণাম করিয়া কহিল, “আমিই সংবাদ দিতে আসিয়াছি।” পশুপতি আনন্দিত হইয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “কি প্রকারে গেলে ?” - শাস্ত । প্রথমে উষ্ণীষ, অস্ত্র ও তুরকী বেশ সংগ্ৰহ করিলাম। তাহ বাধিয়া পৃষ্ঠে সংস্থাপিত করিলাম। তার পর কাঠুরিয়াদিগের সঙ্গে বনপথে