পাতা:বঙ্কিমচন্দ্রের উপন্যাস গ্রন্থাবলী (প্রথম ভাগ).djvu/৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


수 o বঙ্কিমচন্দ্রের গ্রন্থাবলী তাহার উপর মবারককে চড়াইয়া উদয়পুর যাত্রা করিল। পথে যাইতে যাইতে ঘোড় পাশাপাশি করিয়া নির্জনে মবারক জেবাউন্নিসার সকল কথা মাণিকলালকে ‘বলিল । মণিকলাল বুঝিল যে, জেবউন্নিসার কোপানলে মবারক ভস্মীভূত হইয়াছে। এ দিকে আসিরীন ফিরিয়া আসিয়া জেবউন্নিসাকে জানাইল যে, কিছুতেই বাচান গেল না । জেবউন্নিসা আতরমাখা রুমালখানা চক্ষুতে দিয়াছিল, এখন পাথরে লুটাইয়া পড়িয়া চাযার মেয়ের মত মাথা কুটিতে লাগিল । ষে দুঃখ কাহারও কাছে প্রকাশ করিবার নয়, তাহা সহ করা বড়ই কষ্ট । বাদশাহজাদার সেই দুঃখ হইল । জেবউন্নিসা ভাবিল, “যদি চাষার মেয়ে হইতাম !” এই সময়ে কক্ষদ্বারে বড় গণ্ডগোল উপস্থিত হইল । কেহ কক্ষপ্রবেশ করিবার জন্ত জিদ করিতেছে -প্রতিহারী তাহাকে আসিতে দিতেছে না। জেবউন্নিসা যেন দরিয়ার গলা শুনিলেন । প্রতিহারী তাহাকে আটক করিয়া রাখিতে পারিল না । দরিয়া প্রতিহারীকে ঠেলিয়া ফেলিয়া দিয়া কক্ষমধ্যে প্রবেশ করিল। তাহার হাতে তরবারি ছিল । সে জেবউন্নিসাকে কাটিবার জন্য তরবারি উঠাইল । কিন্তু সহসা তরবারি ফেলিয়া দিয়া জেব-উল্লিসার সম্মুখে মৃত্য আরম্ভ করিল। বলিল, “বহুৎ আচ্ছা-চোখে জল ” এই বলিয়া উচ্চস্বরে হাসিতে লাগিল । জেব-উন্নিসা প্রতিহারীকে ডাকিয়া উহাকে ধৃত করিতে আজ্ঞা দিলেম । প্রতিহারী তাহাকে ধরিতে পারিল না । সে উৰ্দ্ধশ্বাসে পলায়ন করিল। প্রতিহরা তাহার পশ্চাদ্ধাবিত হইয়া তাহার বস্ত্র ধরিল। দরিয়া বস্ত্র খুলিয়া ফেলিয়৷ দিয়া নগ্লাবস্থায় পলায়ন করিল । সে তখন ঘোর উন্মাদগ্ৰস্ত । মবারকের মৃত্যুসংবাদ সে শুনিয়া ছিল ।