পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন গদ্য-সাহিত্য—রাজ-বিবরণ–১৮২০ খৃঃ । করণার্থে রাজার বিশ্বস্ত সাহসবন্ত অস্ত্রধারী চারিজনকে প্রস্তুত করিল। পরে প্রস্তুত ঐ চারি ব্যক্তি এবং অন্ত কতকগুলি লোক তাহারদিগকে সমভিব্যহারে লইয়া শক্তি পৰ্য্যন্ত রক্তস্রাবি মনোবাঞ্ছা পূর্ণ করণার্থে কেন্তবরী নগরে শীঘ্ৰ গমন করিল। পরে তাহারা বেকেটের বাটীতে উপস্থিত হইয়া এবং তাহার সমারোহ প্রভৃতির নিমিত্তে তাহাকে অনুযোগ করিল। ইতোমধ্যে এক দিবস সন্ধ্যাকালীন ঈশ্বর-ভজনার্থে মহাধৰ্ম্মাচার্য একাকী অসাবধান হইয়া ধৰ্ম্মশালায় যাইতে ছিলেন ইত্যবকাশে যে সময় ঐ বেকেট্‌ ধৰ্ম্মশালার মধ্যে প্রবিষ্ট হইয়া বেদীর নিকটোপস্থিত হইলেন এবং যে সময় তিনি বুঝিলেন যে আমি এবার মার্টর হইব অর্থাৎ ধৰ্ম্মসাক্ষে দত্তপ্রাণ হইব এই আশায় ছিলেন এমত সময় ঐ সকল প্রেরিত লোকের তাহার উপর পড়িয়া পুনঃ পুনঃ প্রহার দ্বারা তাহার মস্তক দ্বিধা করিল তাহাতে ঐ বেকেটু বেনিদিক্ত নামে বেদীর সম্মুখে মৃত হইয়া পড়িলেন। এবং ঐ বেদী তাহার রক্তেতে এবং মজ্জাতে বিচিত্রিত হইল। পরে এই মহাধৰ্ম্মাচার্য্যের দশার সংবাদ প্রাপ্ত হইয়া হেনরি রাজা অত্যন্ত চমৎকৃত হইয়া বিবেচনা করিলেন যে বেকেটের এপ্রকার মৃত্যু হওনেতে রাজ্যস্থ তাবৎ লোক মনেতে এই সন্দেহ করিবে যে এ প্রকার হত্যা হওয়াতে অবশু রাজার অনুমতি থাকিবে এতন্নিমিত্তে লোকের দিগের মন অন্যথা করণার্থে আইলগু দেশেতে চড়াউ করণার্থে মনঃস্তির করিলেন । /৭ শ্ৰীশ্ৰীদুৰ্গ । প্রতুলকত্রী। রাজ-বিবরণ। ( গ্রন্থকারের নাম পাওয়া যায় নাই। প্রোফেসার শ্ৰীযুক্ত যোগীন্দ্রনাথ সমাদার মহাশয় এই পুস্তকের সম্পূর্ণ বিবরণ স্থপ্রভাত নামক পত্রিকায় লিপিবদ্ধ করিয়াছেন। ) আকাশ বায়ু তোজে জল ভূমি এই পঞ্চভূতের মধ্যে পৃথিবীর আট আনা আকাশাদি চারি ভূতের দুই দুই আনা এই ষোল আনাতে মিশ্রিত এবং চন্দ্র বুদ্ধ শুক্র রবি মঙ্গল বৃহস্পতি শনি এই সপ্ত গ্রহের সপ্ত কক্ষতে ও নক্ষত্র কক্ষতে উপরিভাগে আবৃত পঞ্চভৌতিক ভূমিপিণ্ড স্বশক্তিতে ՏԳՀԳ