প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বাংলাদেশ কোড ভলিউম ২৮.djvu/৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○br মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ১৯৯০ নোটিশ জারি করিতে হইবে এবং নোটিশে উল্লিখিত সময়ের মধ্যে, যাহা নোটিশ জারির তারিখ হইতে অনূ্যন পনের দিন হইতে হইবে, আপত্তি উত্থাপনকারীকে শুনানীর যুক্তিসংগত সুযোগ দিতে হইবে। (৩) কোন ব্যক্তি উপ-ধারা (২) এর অধীন প্রদত্ত কোন আদেশের দ্বারা সংক্ষুব্ধ হইলে, তিনি আদেশপ্রাপ্তির তারিখ হইতে ত্রিশ দিনের মধ্যে- 。 (ক) আদেশটি যদি মহা-পরিচালকের অধঃস্তন কোন কর্মকর্তা কর্তৃক ཨ་ཀྱཱ་གྲོང་ཚེ་ হইয়া থাকে, মহা-পরিচালকের নিকট; o (খ) আদেশটি যদি মহা-পরিচালক কর্তৃক প্রদত্ত হইয়া থাকে, সরকারের নিকট আপীল করিতে পারিবেন। مع (৪) উপ-ধারা (৩) এ উল্লিখিত আপীল কর্তৃপক্ষের রায় চূড়ান্ত হইবে এবং বাজেয়াপ্ত ও ৩৫। এই আইনের অধীন বাজেয়াপ্তযোগ্য কেনদ্রব্যের বাজেয়াপ্তির আদেশ সুতুবাদ প্রদানের সংগে সংগে দ্রব্যটি মহা-পরিচালকের নিকট হস্তান্তর করিতে হইবে বিলিবন্দেজ এবং মহা-পরিচালক উহা, বিধি দ্বারা নির্ধারিত পদ্ধতিতে, ব্যবহার, হস্তান্তর বা ধ্বংস করিবার বা অন্য কোন প্রকারে উহার বিলিবদেজের ব্যবস্থা করবেন। శా? ওক। (১) যে ক্ষেত্রে কেন আদালত কোন ব্যক্তিকে এই আইনের অধীন কোন অপরাধের জন্য তিন বৎসরের অধিক কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন, সেইক্ষেত্রে মহাপরিচালক বা তাঁহার নিকট হইতে এতদুদ্দেশ্যে ক্ষমতা প্রাপ্ত কোন কর্মকর্তা লিখিত আবেদন দ্বারা উক্ত দণ্ডিত ব্যক্তির সম্পদ, যাহার তালিকা অধোতে পালে। (২) আদালত যদি এই মর্মে সন্তুষ্ট হয় যে, উপ-ধারা (১) এর অধীন দাখিলকৃত তালিকায় উল্লিখিত কোন সম্পদ এই আইনের অধীন কোন অপরাধমূলক কর্মকান্ড হইতে উদ্ভুত, আহরিত বা অর্জিত হইয়াছে তাহা হইলে s তবে শর্ত থাকে যে, আদেশ দ্বারা সংক্ষুব্ধ হইতে পারে এমন কোন ব্যক্তিকে Q কারণ দর্শানোর নোটিশ এবং তাহার শুনানীর যুক্তিসংগত সুযোগ প্রদান ব্যতীত § এই ধারার অধীন কোন আদেশ প্রদান করা যাইবে না: so আরও শর্ত থাকে যে, যদি উক্ত ব্যক্তি কোন কারণ দর্শাইতে ব্যর্থ হন অথবা & আদালতে তৎকর্তৃক নির্ধারিত তারিখে উপস্থিত না হন তাহা হইলে আদালত Q প্রাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে একতরফা আদেশ প্রদান করিতে পারিবে ।

  • ধারা ৩৫ক মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ (সংশোধন) আইন, ২০০০ (২০০০ সনের ৩৯ নং আইন) এর ১৭ ধারাবলে

সন্নিবেশিত।