পাতা:বাংলা শব্দতত্ত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর -দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীমসের বাংলা ব্যাকরণ \అఏ তাহার স্থানে “কার” ব্যবহার হয়। উৰ্দ্ধবৰ্ত্তী, নিম্নবৰ্ত্তা, সম্মুখবর্তী, পশ্চাদ্বত্তী, অগ্রবর্তী প্রভৃতি শব্দের স্থলে বাংলায় উপরকার, নিচেকার, সামনেকার, পিছনকার, আগাকার ইত্যাদি প্রচলিত। ঋজুবৰ্ত্তা, বক্রবর্তী, লম্ববৰ্ত্তী ইত্যাদি কথা সংস্কৃতে নাই, বাংলাতেও সোজাকার বাকাকার লম্বাকার হইতে পারে না । \రిe (t | বীমসের বাংলা ব্যাকরণ। ইংরেজিতে একট প্রবাদ আছে ভুলকরা মানবধৰ্ম্ম, বিশেষত বাঙালির পক্ষে ইংরেজি ভাষায় ভুল কর । সেই প্রবাদের বাকি অংশে বলে, মার্জন করা দেবধৰ্ম্ম । কিন্তু বাঙালির ইংরেজি ভুলে ইংরেজেরা সাধারণত দেবত্ব প্রকাশ করেন না। আমাদের ইস্কুলে-শেখ ইংরেজিতে ভুল হইবার প্রধান কারণ এই যে, সে বিদ্যা পুথিগত । আমাদের মধ্যে র্যাহারা দীর্ঘকাল বিলাতে বাস করিয়াছেন, র্তাহারা ইংরেজি ভাষার ঠিক মৰ্ম্মগ্রহ করিতে পারিয়াছেন । এই জন্য অনেক খাটি ইংরেজের ন্যায় র্তাহারা হয়তে ব্যাকরণে ভুল করিতেও পারেন, কিন্তু ভাষার প্রাণগত মৰ্ম্মগত ভুল কব র্তাহাদের পক্ষে বিরল। এদেশে থাকিয় যাহার। ইংরেজি শেখেন, তাহারা কেহ কেহ ব্যাকরণকে