পাতা:বাংলা শব্দতত্ত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর -দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> > 8 শব্দতত্ব যায়—বিকৃতিটা আগে এবং মূলশব্দটা পরে যেমন –আশপাশ। অদ্ধিসন্ধি, অলিগলি, হাবুডুবু হুলস্থল। উল্লিখিত তালিকার প্রথমাদ্ধের শেষ অক্ষরের সহিত শেষার্দ্ধের - শেষ অক্ষরের মিল পাওয়া যায় । কতকগুলি কথা আছে যেখানে. সে মিলটুকুও নাই। যেমন, দৌড়ধাপ, পুজিপাট, কান্নাকাটি,তিতিবিরক্ত । * এইবার আমর। ক্রমে ক্রমে একটা জায়গায় আসিয়া পৌছিতেছিযেখানে জোড়াশব্দের দুইটি অংশই অর্থবিশিষ্ট। সেস্থলে সংস্কৃত ব্যাকরণের নিয়মান্থসারে তাহাকে সমাসের কোঠায় ফেলা উচিত ছিল । কিন্তু কেন যে তাহ সম্ভবপর নহে দৃষ্টাস্তের দ্বারা তাহা বোঝানো যাক –ছাইভস্ম, কালিকিষ্টি, লজ্জাসরম প্রভূতি জোড়াকথার দুই অংশের একই অর্থ—এ কেবল জোর দেবার জন্য কথাগুলাকে গালভরা করিয়া তোলা হইয়াছে। এইরূপ সম্পূর্ণ সমার্থক ব। প্রায় সমার্থক জোড়াশব্দের তালিকা দেওয়া গেল । চিঠিপত্র, লোকজন, ব্যবসাবাণিজ্য, দুঃখধান্দা, ছাইপাশ,. ছাইভস্ম, মাথামুণ্ডু, কাজকৰ্ম্ম, ক্রিয়াকৰ্ম্ম, ছোটোখাটে, ছেলেপুলে, ছেলেছোকরা, খড়কুটে, সাদাসিধে, জাকজমক, বসবাস, সাফস্থৎরো, ত্যাড়াবাকা, পাহাড়পৰ্ব্বত, মাপজোখ, সাজসজ্জা, লজ্জাসরম, ভয়ডর, পাকচক্র, ঠাট্টাতামাসা, ইসারাইঙ্গিত, পাখীপাখালী জন্তুজানোয়ার, মামলামকদম, গা-গতর, খবরবাৰ্ত্ত, অস্থখবিসুখ গোনাগুস্তি, ভরা ভৰ্ত্তি, কাঙালগরীব, গরীবদুঃখী, গরীবগুৰ্ব্বো, রাজারাজড়া, খাটপালং, বাজনবোদ্য, কালিকিষ্টি, দয়ামায়া, মায়ামমতা, ঠাকুরদেবতা, তুচ্ছতাচ্ছিল্য, চালাকচতুর, শক্তসমর্থ,.