পাতা:বাংলা শব্দতত্ত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর -দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১৬৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাংল। ব্যাকরণে বিশেয বিশেষ্য S&S বিশেষভাবে একটি বা অনেকগুলি কাগজ বোঝায় না, তাহার দ্বারা সমস্ত কাগজকেই বোঝায়। এমন স্থলে যদি কোনো বিশেষ কাগজকে আমরা নির্দেশ করিতে চাই তবে সেজন্য বিশেষ চিহ্ন ব্যবহার করা আবশ্বক হয়। ংরেজি ব্যাকরণে এইরূপ নির্দেশক চিহ্নকে Article বলে । বাংলাতেও এই শ্রেণীর সঙ্কেত আছে। সেই সঙ্কেতের দ্বার। সামান্ত বিশেষ্যপদ একবচন ও বহুবচন রূপ ধারণ করিয়া বিশেষ বিশেষে পরিণত হয়। একথা মনে রাখা কৰ্ত্তব্য, বিশেষ্যপদ, একবচন বা বহুবচনরুপ গ্রহণ করিলেই, সামান্যতা পরিহার করে । একটি ঘোড়া বা তিনটি ঘোড়া বলিলেক্ট ঘোড়া শব্দের জাতিবাচক অর্থ সঙ্কীর্ণ হইয়া আসে—তখন বিশেষ এক বা একাধিক ঘোড়া বোঝায়—সুতরাং তখন তাহাকে সামান্ত বিশেষ্য না বলিয়। বিশেষ বিশেষ্য বলাই উচিত। এই কথা চিন্তা করিলেই পাঠক বুঝিতে পারিবেন আমাদের সামান্ত বিশেষ্য এবং ইংরেজি Common name q. 5 Rtz | বিশেষ বিশেষ্য একবচন মোটামুটি বলা যাইতে পারে বাংলার নির্দেশক চিহ্নগুলি শব্দের পূৰ্ব্বে না বসিয়া শব্দের পরেই যোজিত হয় । ইংরেজিতে “the room”—বাংলায় “ঘরটি” । এখানে “টি” নির্দেশক চিহ্ন । টি ও টা ইংরেজিতে the আর্টিক্ল একবচন এবং বহুবচন উভয়ত্রই বসে কিন্তু বাংলায় টি ও টা সঙ্কেতের দ্বারা একটিমাত্র পদার্থকে