পাতা:বাংলা শব্দতত্ত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর -দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


:)\e শবদ তত্ত্ব অনেক শব্দ আপন মৰ্য্যাদা লঙ্ঘন করিয়া চলে, কেহ তাহাতে আপত্তি করে না,–কিন্তু পারিভাষিক ব্যবহারে কঠোরভাবে নিয়ম মানিয়া চলিতে হয় । যেমন বন্ধুর নিমন্ত্রণক্ষেত্রে মানুষ নিয়মের দিকে দৃষ্টি রাখে না, সামাজিক নিমন্ত্রণে তাহাকে নিয়ম বঁাচাইয়া চলিতে হয়—এও সেইরূপ । , আমাদের তর্জমায় আমরা অর্থ স্পষ্ট করিবার খাতিরে দুই একটা বাড়তি শব্দ বসাইয়াছি। যেমন শেষ বাক্যে মূলে যেখানে wité, and among them are many species of birds,” আমরা লিখিয়াছি ‘এই শক্রদের মধ্যে নানাজাতীয় পক্ষী আছে’— অবিকল অনুবাদ করিলে লিখিতে হইত এবং তাহাদের মধ্যে ইত্যাদি। ইংরেজিতে একটি সাধারণ নিয়ম এই যে, সৰ্ব্বনাম শব্দ তাহার পূর্ববর্তী নিকটতম বিশেষ্য শব্দের সহিত সম্বন্ধবিশিষ্ট। এস্থলে them সৰ্ব্বনামের অনতিপূর্বেই আছে enemies, এইজন্য এখানে তাহাদের বলিলেই শক্রদের বুঝাইবে। বাংলায় এ নিয়ম পাকা নহে, এইজন্য, তাহদের মধো নানাজাতীয় পক্ষী আছে? বলিলে যদি কেহ হঠাৎ বুঝিয়া বসেন, গাছেদের মধ্যে নানাজাতীয় পক্ষী আছে, অর্থাৎ পক্ষী বাসা বাধিয় থাকে? তবে তাহাকে খুব দোষী করা যাইবে না। ইংরেজিতে "and", আর বাংলায় এবং শব্দের প্রয়োগ ভেদ আছে । সেটা এখানে বলিয়া লই । ‘তাহার একদল নিন্দুক শত্রু আছে এবং তাহারা খবরের কাগজে র্তাহার নিন্দ করে’ এই বাক্যটা ইংরেজি ছাছের হইল। এস্থলে আমরা এবং,