পাতা:বাংলা শব্দতত্ত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর -দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৮৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


.ཨ་ལ་ཧ་ཡངས་དག་ཀའ་དག་ཌ י יהליופי-איינשא ל"געש"י o ¢९ শব্দতত্ত্ব পদার্থবাচক বিশেষ্যেরও দৃষ্টান্ত আছে, যেমন, বাটুন, কুটুনা, ওড় না, ঝরনা, খেলনা, বিছানা, বাজ না, ঢাক্না । ই প্রত্যয় । ধৰ্ম্ম ও ব্যবসায় অর্থে –গোলাপি, বেগুনি, চালাকি, চাকুরি, চুরি, ডাক্তারি, মোক্তারি, ব্যারিষ্টারি, মাষ্টারি। খাড়াই ( খাড়া পদার্থের ধৰ্ম্ম ) , লম্বাই ; চৌড়াই ; ঠাণ্ডাই ; আড়ি ( অাড় অর্থাৎ বক্র হইবার ভাব) । অন্তকরণ অর্থে —সাহেবি, নবাবি, দক্ষ অর্থে—হিসাবদক্ষ হিসাবি, আলাপদক্ষ আলাপি, ধ্রুপদদক্ষ ধ্রুপদি । বিশিষ্ট অর্থে—দামবিশিষ্ট দামি, দাগবিশিষ্ট দাগি, রাগবিশিষ্ট রাগি, ভারবিশিষ্ট ভারি । ক্ষুদ্র অর্থে—হাড়ি, পুটুলি, কাঠি । ( ইহাদের বৃহৎ হাড়, পোটলা, কাঠ ) । দেশীয় অর্থে—মারাঠি, গুজরাটি, আসামি, পাটনাই, বসরাই । স্বার্থে—হাস হাসি; ফাস ফাসি; লাথ, লাথি ; পাড় (পুকুরের) পাড়ি। কড়া, কড়াই ( কটাহ )। দিন নির্দেশ অর্থে–পাচই, ছউই, সাতই, আটই, নওই, দশই, এইরূপে আঠারই পৰ্য্যন্ত । আ+ই প্রত্যয় । ক্রিয়াবাচক,—বাছাই, যাচাই, দলাই মলাই ( ঘোড়াকে ), খোদাই, ঢালাই, ধোলাই, ঢোলাই, বাধাই, পালটাই ।