পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জংলা-একতাল। জয় কালী জয় কালী, ব’লে যেগে থাকরে মন । তুমি ঘুম যেয়োনা রে (ভোলা মন ), ঘুমেতে হারাবে ধন ৷ নবদ্বার স্বরে, সুখে শয্যা করে, হইবে যখন অচেতন । তখন আসিবে নিন্দ, চোর দিবে সিদ, হরে লবে সব তৈন ॥ απα απα, αμα, | লগ্নী—অড়িখেমটা । মা বসন পর | * $.” " বসন পর, বসন পর, মাগে বসন পর তুমি । । চন্দনে চচ্চিত জবা, পদে দিব আমি গে| ॥ কালীঘাটে কালী তুমি, মাগে কৈলাসে ভবানী বৃন্দাবনে রাধাপ্যারা, গোকুলে গোপিনী গে| ॥ পাতালেতে ছিলে মাগো, হয়ে ভদ্রকালী । কত দেবতা করেছে পুজ, দিয়ে নরবলি গে। কার বাড়ী গিয়েছিলে, মাগে৷ কে করেছে সেবা। শিরে দেখি রক্তচন্দন, পদে রক্তজবা গো | ডানি হস্তে বরাভয়, মাগো বাম হস্তে আসি । কাটিয়া অমুরের মুণ্ড, করেছ রাশি রাশি গো ॥ অসিতে রুধির ধারা, মাগো গলে মুণ্ড-মালা । হেঁট মুখে চেয়ে দেখ, পদতলে ভোলা গে৷ মাথায় সোণার মুকুট, মাগো ঠেকেছে গগনে। মা হয়ে বালকেরী পাশে, উলঙ্গ কেমনে গে' ৷ আপনি পাগল, পতি পাগল, মাগো আরও পাগল আছে । ওমা, রামপ্রসাদ হয়েছে পাগল, চরণ পাবার আশে গো | ம்ம்ம் உண்க

  • কোনও কোনও গ্রন্থে এইরূপ পাঠ দৃষ্ট হয়— বমন পরে মা, বমন পরে তুমি।

রাঙ্গ চন্দনে মাখিয়! জবা পদে দিব আমি । থতৃণ হস্তে রুধির ধার, এ মা মুণ্ডমালা গলে, একবার হেঁট নয়নে চেয়ে দেখ মা, পতি পদতলে গো মা | সবে বলে পাগল পাগল, ওমা আরো পাগল আছে। রামপ্রসাদ হয়েছে পাগল, চরণ, পাবার পাশে ॥ f পাঠান্তরে—“মা হয়ে সন্তানের পাশে p বাঙ্গালীর গান । اند . অভয় পদে প্রাণ সঁপেছি। আমি আর কি যমের ভয় রেখেছি | কালীনাম কল্পতরু, হৃদয়ে রোপণ করেছি। ( আমি ) এ দেহ বেচে ভবের হাটে, দুর্গানাম কিনে এনেছি। দেহের মধ্যে সুজন যে জন, র্তার ঘরেতে ঘর করেছি । এবার শমন এলে, হৃদয় খুলে, দেখাব ভেবে রেখেছি । সারাংসার তার নাম, আপন শিখগ্রে বেঁধেছি। রামপ্রসাদ বলে দুর্গা বলে, যাত্রা করে বসে আছি ॥ गिकू —१९५ौ | এমন দিন কি হবে তারা । যবে তারা তারা তারা বলে, তারা বয়ে পড়বে ধরা ॥ হদিপদ্ম উঠবে ফুটে, মনের আঁধার যাবে ছুটে, তখন ধরাতলে পড়বে লুটে, তারা বলে হব সরা। ত্যজিব সব ভেদাভেদ, ঘুচে যাবে মনের খেদ, ওরে শত শত সত্য বেদ, তারা আমার নিরাকার শ্রীরামপ্রসাদ রটে, মা বিরাজে সৰ্ব্ব ঘটে, ওরে আঁখি অন্ধ, দেখ মাকে তিমিরে তিমিরহর । தங்க கன்க: তারা-ভরী লেগেছে বাটে । যদি পারে যাবি মন আয়ুরে ছুটে । তার নামে পাল খাটারে, তুরায় তরী চল বেয়ে ; যদি পারে যাবি, দুখ মিঠাবি, মনের গিরা দেরে কেটে ॥ বাজারে বা • রি কর মন, মিছে কেন বেড়াও ছুটে । ভবের বেলা গেল, সন্ধ্যা হল, কি করবে আর ভবের হাটে ॥ ত্রীরামপ্রসাদে বলে, বধ রে বুক এটে সেটে। ওরে, এবার আমি ছুটিয়াছি, ভবের মায়া বেড়ী কেটে ॥