পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৫২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


)Sa তোমার প্রেম হতে, প্রাণ, বিচ্ছেদ আমায় ভালবেসেছে। প্রেম হ’ল আর ফুরাল, চখে দেখতে দেখতে গেল, জন্মের মত বিচ্ছেদ আমায় অস্তরে পশেছে। কলহ নিৰ্ব্বাহ হয়ে সন্দেহ মিটেছে। তোমার প্রেমে সঁপে প্রাণ, কেবল হ’ল অপমান, মুখ হবে কি বল দেখি সাধতে গেল প্রাণ । এ সব মুখের চেয়ে আমার স্বস্তি ভাল হে, সে সব সাধাসাধির দায়ে প্রাণ বেঁচেছে ৷ পরের ভালবাসা প্রেমের আশা সকলি আকাশ, কোন মুখ দেখিন। শঠের প্রেমে দুঃখ লারমাস। কেবল হাসায় আর কী ধু, সদা প্রাণেতে জ্বালয়, আজ নে তোলে সিংহাসনে, কাল পথেতে বসায় । পথে কেঁদে কেঁদে বেড়াই, হয়ে আপনার ধনে আপনি চোর, সে সব প্রবৃত্তি এখন নিবৃত্তি হয়েছে। ওহে প্রাণনাথে, পিরীত হোলে৷ বিচ্ছেদের প্রজা । শুনেছি প্রেম নগরে, বিচ্ছেদ রাজত্ব করে, রসিকেরে প্রাণে মারে, সেই তুরস্ত রাজা । প্রেমিক জনারে দেয়, বিরহ সজা । প্রেমের দেশে প্রাণনাথে হে, বিচ্ছেদ ভূপতি। তার আতঙ্গে মরি, মুনে ভয় করি, কেমন কোরে কৰ্ব্বে পিরীতি ॥ তুমি নিত্য নিত্য বল আমার প্রেমে করিতে। মনে সাধ হয়, আবার করি ভয়, প্রাণ রে, י বাঙ্গালীর গান । এই বড় ভয় আমারো মনে। পাছে কুলো যায়, না পাই প্রেমধন, শেষে হাসবে শক্রগণে । পিরীতের রীতি আমি কিছু জানিনে। প্রেমমুধা আস্বাদন, সদা করিতে চাহে পোড়া মন । নাহি জেনে মন্ত্র, নাথে, দিব হাতে ফণীর বদনে ॥ সাধে কি কলঙ্গ-ভয়ে ভঙ্গ দিতে চাই ? মুখ-আশে মোজে শেষে, কুল বা হারাই । একে তরুণো তরী, তায় তুমি হে নব কাণ্ডারী, তোমায় প্রাণ দিতে । | নূতন প্ৰেম-বাজার, বিচ্ছেদ রাজার অধিকার। নবীন যুবতী, করিলে পিরীতি, বিচ্ছেদৃ তো কর লবে আমার। শেষে আমাকে পাবে না, হবে হে লাঞ্ছন, কেবল কুলেতে উঠিবে কলঙ্ক ধ্বজ ॥ কলঙ্গসাগরে প্রাণে, দেখো যেন ডুবে মরিনে। মনের মিলনে মনে থাকৃবো দু’জন । তুমি কেব| আমি কেব| চেনা যাবে না । স্বন চাতকিনী প্রায়, প্রেম সমানে থাকৃবে দুজনায়। মেঘে যেমন শশী ঢাকা, তেমনি সখী লুকায়ে থেকে ॥ আমি জন্মে জানিনে প্রেম,যাতনা মনে পড়ে ন । সই তুমি মজালে, তোমার ধৰ্ম্মে সবে না। স্বর্ণ-পিঞ্জর আছে সজনি, কেন বায়ুস এনে বসালে | দেশ ঢলালেমূ প্রেম কোরে সই, প্রাণ গেলে বাচি । বিচ্ছেদ বিষে, লোকের রিষে, আমি দুই জ্বালাতে জ্বলতেছি। না বুঝে মজেছি প্রেমে, কপাল ক্রমে, একে হলো আর । আমি প্রাণ জুড়াতে গেলেম, শেষে প্রাণ বাচানো ভার। একে নব ভাব, অনুরাগ পড়ে মনে । প্রাণ সঁপিলাম তীরে আমি না জেনে শুনে ॥ " চোরেরো রমণী যেমন সই, তেমুনি মৰ্ম্মে মরে আছি ॥ ταμαυμωμα