পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৫৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাম বসু । সে যেমন হোকু হয়েছে, আমার কপালে ছিল হে যেমন । রঙ্গরসে ছিলাম এত দিন , প্রাণনাথ প্রেমের পথে, জেনাতে কে কার অধীন । শেষে যদি করিবে এমন কেন আগে বাড়াইলে মন । মরি প্রাণরে কথা কবার নয়, কইতে কাতর হই—ঙ্গদয়ে পূজ্য ছিলাম, ত্যজ্য হলাম যৌবন গিয়ে ॥ দবে দেখা প্রাণনাথ হত হে পথে আপন আপনি তুলিতে হাতে, আশাrশর চন্কে পেতে, এখন ত সেই পথের দেখা হয়, প্রাণনাথ লজ্জাতে মুখ ঢক, যেন ঠেকেছ কি দায়! প্রেম গেছে, যৌবন গেছে, শেষে তুমি করিলে প্রস্থান। সপলাম এই ভেবে তার আগে মন । কে জানে সে মন না দিবে। দিয়া আপনার ধন, সেধে পরে, পরের ধন পেলাম না পরে ; স্বপ্নে জানিনা সে এই শত্ৰু হাসাবে । আগে তুললে সিংহাসনে কথাতে, কে জানে শেষে কাদাবে। ভাবলাম প্রাণ দিয়ে পাব পরের প্রাণ, জুড়াব দুজনায়—হবে সই মুখের অনুষ্ঠান। মন সরল নাকি নারীর অতিশয়, কপট বোঝে না, তাতেই মজেগে পুরুষের শঠভাবে । প্রেমে মুখী হব বলে সখি গে, ৯ সপিলাম পরে প্রাণ মন । ভাগ্য গুণে সে সাধে বিষাদ, ঘটুলে আমার সই এখন। প্রেমের রীতি নীতি পদ্ধতি ব্যবহার" জনৃতাম না আগে সই, শিখিলাম ঠেকিয়ে এবার । ১৬৩ আমি অবল সরল, এত কি জানি বলেন । আমার বললে সে মন দিলেই মন তুধিৰে । -...........................=» দাড়াও দাড়াও প্রাণনাথ, বদন ঢেকে যেয়ে না । তোমায় ভালবাসি তই, চোখের দেখা দেখতে চাই কিছু কাল থাক, থাক, বেলে ধরে রাখবে না। শুধু দেখা দিলে তোমার মান যাবে | | তুমি ধতে ভাল থাক সেই ভাল । গেলে গেলে বিচ্ছেদে প্রাণ, আমার (5 | তোমার পরের প্রতি নির্ভর, আমি তো ভাবিনে পর, তুমি চক্ষু মুদে আমায় দুঃখ দিওনা। দবযোগে যদি প্রাণনাথ, হোলো এ পথে আগমন । இது বও কথ, একবার কও কথ, তোল ও বিধুবদন । পিরীত ভেঙ্গেছে, ভেঙ্গেছে তায় লজ্জা কি ? এমন তো প্রেম ভাগাভাঙ্গ অনেকের দেখি । আমার কপালে নাই মুখ, বিধাতা হলো বিমুখ, আমি সাগর ছেঁচেও মাণিক পেলেম না। y கம்மகது এমন ভাব-রাধ ভাব কোথ। শিখিলে । সে ভাব কোথ! হে, যে ভাবে ভুলালে। ভাব দেখি নবভবে, কি ভাবে ছিলে । ভাবে ভাব কোরে ভবাস্তর, এখন তার অভাবে ভাবালে। স্বভাবে অভাব আজ দেখি হে তোমার। এ কি ভাবের দেখ, কও সখা আবার ॥ অনুরোধে প্রবোধিতে মন, ভাল ভাবের উদয় দেখালে । মরি মরি, তোমার ভাবে ঝুরি, তুমি জান কত ছল । মুখে বধু,যেন মধু হণে રનારના