পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ꮌ Ꮔ8 প্রণয়কারণে উভযের দোষগুণ না করে বিচার। কামিনী পুরুষ মাঝে সই, আছে যত জন । যে যাহাধ মন কোরেছে হরণ । মান অপমান দেখে না দোকে, সদা করে অঙ্গীকার ॥ ওরে প্রাণরে, গরিমা নাহিক প্রেমিকদেহে । । প্রেমের অধীন হোলে সকলি সহে ॥ গুরুজনী গঞ্জনা দেয়, না হয় দুর্থী। সদা বাসনা প্রিয়তমেরে দেখি । দিনাস্তরে দেখা না হোলে, মন প্রাণ দহে দোহাকার । সেই তুমি সেই আমি—সেই প্রণয়— নতন নয় পরিচয়। হলে প্রাণ, রসের অনুষ্ঠান, তবে বিরস বদন কেন হয় । তোমায় লোকে কয় রসময়, মিথ্য নয়, সে রস পরের কাছে হয় ; বরে এলে মুখ যেন সে মুখ নয়। তোমার আমার প্রতি ভ্রান্তি, শিরে সংক্রান্তি, যেমন শান্তিশতকেতে পাঠ এগুলো । ভাৰ দেখে করি অনুভব, ভাব বুঝি ফুরাল। দিনের দিন রসহীন হয়েছি আমি ; আছ সেই তুমি, তোমার প্রেম লুকাল। এই দুঃখে প্রাণনাথ প্রাণ দহিল । ছিল নব রস, ছিলে বশ, কত যশ, করতে তুমি প্রাণধন ; দেখা হলে এখন, তুলে চাওনা ও বদন। তখন হাসি হাসি তুষিতে প্রেয়সী-প্রাণ, সে সব শশিমুখের হাদি কোথায় গেল। ছুন পূর্ণ ষোল কলা, ষোড়শী বালা, যৌবন ধরা নাহি যায়। কৃষ্ণপক্ষে যেমন দিনের দিন হচ্চে কলানিধির ক্ষয় । আমার এ ধনের সন্তোগী যে জন, করিল না রক্ষে, দেখিল বিপক্ষে রক্ষা করি যক্ষের ধন । সখি, বাঙ্গালীর গন । পোড়া মদনের যন্ত্রণ, প্রাণে অব সহে ন৷ কান্ত পুরাল না মন-আশ । বলব কি এ দুখিনীর এই জল বারমাস । গেল চিরদিন কুঁদিতে, বসন্তে কি শীতে আমার হয়েছে যেন সীতার বনবাস । জানলেম ভাগ্যে সই পুর্ণ হল না অভিলাষ। আমি সাধে কি সাধি ন সই তায় ; দেখলে সই আমায়ু, শত্রু ফিরে চায়, সে যেন চোখের মাথা খায় । রেখে বিরহবাসবে, যুবতী নারীরে, প্রাণনাথ যুগেতে করলে নিরাশ ॥ _ বালিকা ছিলাম, ছিলাম, ভাল ছিলাম, ছিল ন সুখ অভিলাষ । পতি চিনতাম না, হৃদপদ্ম ছিল অপ্রকাশ । এখন সেই শতদল মুদিত কমল, কাল পেয়ে ফুটিল, পদ্মের মধু পদ্মে রেখে ভৃঙ্গ উড়ে গেল । একে মদনের পঞ্চ শর, প্রাণনাথের বিচ্ছেদশর, তুই শরে সারা হল যুবতী । আমির কুলের নাশক হ’ল রতিপতি, আমার প্রাণনাশক হল প্রাণপতি, আমি অবলা বই নই, কি করি বল সই হয়েছি বিচ্ছেদে নুতন ব্রতী । উভয় সঙ্কটে পড়ে গো সই, হলে এ কি দুৰ্গতি ॥ ও তার নামটি মদন, গঠন কেমন, দেখতে পাইনা চোখ, জিতের যুদ্ধ যেমন, বাণ মারে কোথা থেকে। একে অৰ্দরথী নারী, তার সঙ্গে কি পারি, তাতে নাই আমার যৌবন-রথের সারথী। পোড়া মদন ত তাও সই বুঝে না। দেখে অবল নারী, তাতে যুবতী, আপনি পতি হয়ে যদি বুঝলে ন| বেদন । রতিপতি বুঝবে কেন পরনারীর যাতন ॥ জ্বালালে পতি হয়ে যদি নারীর প্রাণ, দোষ কি দিল মদনে।