পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮২ গুম, প্রদীপেৰে আলো, প্রকাশে পাইলে, চনমা লুকালো গগনে । ওহে গোগরের জলে, জগতে ব্যাপিলে, সাগরে শুকালে তপনে ॥ ம்_து প্রাণনাথে মেরো, সেজেছেন শঙ্করে, দেখসিয়ে প্রিয়ে ললিতে । অপকপো দরশনে, আজু প্রভাতে। বুঝি কারো কাছে রজনী জেগেছে, নয়ন লেগেছে দুলিতে। পাৰ্ব্বতীন থেরে, অৰ্দ্ধ-শশধরে, সবিতা অৰ্দ্ধ কপালেতে । আমার নগরে, সেজেছেন সুন্দরে, চন্দনো সিন্দর ভালেতে ॥ হায়! মথনেরে বিষে, ভখিয়ে মহেশে, নীল-কণ্ঠদেশে নিশান । নীলকণ্ঠ নাম, অতি অনুপাম, জগতে রোয়েছে ঘোষণা ৷ আমার নাগরে, গিয়েছিলেন করে, কলঙ্গ-সাগরে মথিতে । ফুরায়ে মস্থনে, এনেছেন নিশোনে, আঁথির অঞ্জনে গলাতে ॥ হায়! সে যেমনে ভোল, তাহতে উজ্জ্বলা গলে অস্থিমালা ছড়াতে । মুখে কৃষ্ণ নাম, শিঙ্গায় বলে রাম, বিশ্রাম কুচনীপাড়াতে ॥ পোহায়ে রজনী, এই গুণমণি, এসেছেন মন তুষিতে। গুঞ্জছড়া গলে, মুখে সুধা ঢালে, রাধী রাধা বলে রাণীতে ॥ হায়! ত্রিলোচনে, ইরো, জগতে প্রচারে, এক চক্ষু যারো কপালে। কৃষ্ণপ্রেমে ভোর, পাগলের পারা, ধুতুরা শ্রবণযুগলে। ইহারো সেইমতো, সপত্র সহিতে, কদম্ব শ্রবণযুগেতে। | ত্ৰিলোচনচিহ্ন, দেখ দীপ্যমান, কপালে কঙ্কণো আঘাতে ॥ বাঙ্গালীর গান । শ্ৰীমতীর মনে, মনেতে মগনে। ওখানে এখনে যে ও না । মানা করি কলহ আর বাড়াও ন । বিষাদের বাতি, জেলেছেনৃ শ্ৰীমতী, তাহাতে আন্ততি দিও না ॥ নিবেদন করি, ফিরে ধাও হরি, ইয়ারে দাড়ায়ে থেকন । J কত নারীর সঙ্গে, কোরেছ কি র%, , শ্ৰীমতীর শ্ৰীঅঙ্গ ছুওন । গুম্‌, নিতি নিতি তবে, দেখি হে যে ভাবে, তথাচ সে সবে পাসরি। এ বারে তোমরো, রাধা পাওয়া ভাবে যে ভাবে বোসেছেন কিশোরী ॥ জিনি মেরুগিরি মানভরে ভাবি, মরিবার ভয় করে না। যদি গিরিধারী, হোতে চাহ হরি, মনে করি রাধা পাবে না। খাম্, কার ভাবে ভুলে, কহ কোথা ছিলে, মোজেছিলে কার প্রেমেতে । প্রভাতে কেমনে, আইলে এস্থানে, নিলাজো বদনে দেখাতে । সুখের নিশিতে, এখানে আসিতে, তোমারো মনেতে ছিল না। বিপক্ষ হাসাতে, এসেছে প্রভাতে, করিতে কুপটো ছলনা। শ্রাম, শরমে কি করে, বলি হে তোমারে, শ্ৰীমতী রাধার কথাটি । এবারে মাধবে, যে আনি মিলবে, - সে খাবে রাধার মাথাটি ॥ দিয়ে পদ দুটি, মাড়াবে যে মাটি, । শ্ৰীমতী তে সেটি ছোবে না। তুলিয়ে সে মাটী, দিবে ছড়া ঝাটি ঐরাধার এটি কট্‌কেনী ॥ সখি, এ সকল প্রেম নয়। ইহাতে মঞ্জিয়ে নাহি সুখেরে উদয়। সুসদৃভঞ্জনে, লোকগঞ্জনে, কলঙ্কভাজনে হোতে হয় ॥