পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩৩৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Э8 2 ஆடி ঝিঝিট-য২ । মরি রে, রাম কোমল নামটী যে জন লয়। রাম তারকব্ৰহ্ম নামের ধৰ্ম্মে, ভবে জন্ম তার কি হয় ॥ চরণের গুণ তুলনা, পাষাণ মানব কাষ্ঠ সোণা, হায় রে!— ভাসে নামের গুণে জলে শীলে, বন-পশু বন্দী রয় ॥ খণিজি—য়S । খাম| মার কি নামটী কোমল বলি ডাকে বে। অতি দুগ্ধপোল্য বালক, আগে মা বলিয়ে ডাকে রে | কমলে কি তার উপমা – নীলকমল-বরণী শুমা, শঙ্কর যার চরণকমল, হংকমলে রাখে রে । বসতি কমলাসনে, কালীদহে কমলবনে, কমলে কামিনী মাকে শ্ৰীমন্ত যায় দেখে রে ॥ निति9-न १ । মা তোর একি ভাব গে ভবদর" | ছিল যে রূপ অপরূপ দিগঙ্গরী, কি ভাবে আজ পীত বসন কেন পরি, হ’লে বংশীধারী, রজনারীর মনচোরা ॥ কোথা লুকাইলে বল গো মা ! সে রূপ তোর গো শঙ্কররাণী শ্রামা । অসিতবরণী মুক্তকেশী অসিধরা। থটুভৈরবী-একতাল । ওহে হরি ! কি রূপ ধরিলে । ত্যজ পদ্মাসন, মদনমোহন ! মদনাস্তক-হৃদে দাড়ালে ॥ কেন হরি | পীতলাস পরিহরি, কি ভাব, সে ভাব পাসরি, গোলোকের ঈশ্বরী ! কোথা সে কিশোরী, মোহন শিল্পী কোথায় লুকালে ৷ বাঙ্গালীর গান । श्रद्रB-१९ ।। মন! ভাব রে গণপতি, ঐক্য কর দিবাপতি, পশুপতি কমলাপতি পতিতপাবনী তারা । একে পঞ্চ, পঞ্চে এক,—প্ৰস্ত ভেবে হয় সারা ॥ গোবিন্দ শিব শক্তি, অভেদ ভাবেতে ভক্তি,— করে যারা ভব-উক্তি ভবে মুক্তি পায় তারা | তাদের উভয়ে হইল ঐক্য, দু'জনে করি সখ্য, বলিছে প্রেমবাক্য, নয়নে বহিছে ধরা । গেল ধন্দ গেল দ্বন্দ্ব, দূরে গেল মনসন্ধ, জানিল যে শ্ৰীগোবিন্দ, সে ভবানী ভবদরা ॥ ওরে ভ্রান্ত মন! শুনতে বলি, বৃন্দাবনে বনমালী, কৈলাশে মহেশ-রূপ, রণে কলী ভয়ঙ্কর । এক ব্রহ্ম নহে ভিন্ন, রামকুপে রাবণে ধন্ত, ত্ৰিলোক নিস্তার জন্ত, গঙ্গ-রূপে ত্ৰিধারা ॥ পরজ-একতাল । বুঝি কুল-শীল রাখা হলো দায় লে৷ একি দায় লো ! হায় হায় লো, বুঝি জীবন যার লে৷ যে যাতনা-কল সখি, কায় লে | পতির সহ বঞ্চিত, পেলাম ন তাতে বৰ্পিতে, যে দুঃখ চিতে, জ্বলে প্রাণ যেন রাবণের চিতে ; থকে প্রাণ কদাচিতে, কিলে রয় বজায় লে ; মরি লাজে—লাজ পেয়ে লাজ যে যায় লো । ठाणिग्नां-य९ ।। কে চালাবে তরী নাবিক বিনে । ডুবিলম বুঝি ঘোর তুফানে। যদি আসিয়ে তুরায়, লাগায় কিনারায়, তবে রই সই, আর ডুবিনে। মলয়ার সমীরণে, নদীর তুফান বাড়িছে দিন দিশে, ভেঙ্গে গেল হাল, ছিড়ে গেল পলি, কত থাকে আর আশা-গুণে | _ம் সুরট-একতাল । বল হে, কার ভাবে, কি ভাবের অভাবে, এ ভাবেতে, কবে হ'লে মত্ত ।