পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩৮৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R38 গৃহ-কাজ পরিহরি, মন ধায় যথা হরি, অন্তরে গুমুরে মরি, গৃহে নারি থাকিতে। guzhmast cम*-बल्लांद्र-tटैंक কি অপরূপ হেরিলাম যমুনার তটে। যে রূপ হেরেছি পটে, সে-ই বংশী-বটে বটে, মন হইল ব্যাকুল, বুঝি না রহে গো কুল, আশু সদুপায় বলো, যেমনে ঘটে না রটে । বিঝিট-মধ্যমান। কেন বাজো রে, শ্রামের বঁশি । ও রাশি শুনিতে সদা ভাল-বালি। তোমার মধুর রবে, হয়েছি উদাসের দাসী। সতত অস্তরে বজো! আসিয়ে অন্তরে বাজে। ত্যেজ গৃহে-কাজ লাজ, পরেছি প্রেমের ফাসী। বাহার—একতাল । এ সখি ও কে বটে। তপন-তনয়ার তট-নিকটে ॥ কদম্ব-কাননে, শুনিলাম শ্রবণে, ‘জয় রাধা শ্রীরাধা নাম রটে । (উহার) বিপুল নয়নে মন্মথ-বাণ, কটাক্ষে নিক্ষেপ করয়ে সন্ধান ৷ মোহন মূৰ্বতি, হেরিয়ে যুবতী, প্রবেশিল হৃদি-মন-মঠে ॥ ६ोंन्यांख्-म९ामनि । অপরূপ রূপ কি কালো রূপ, উপমা ছাড়া । মদনের তুলনা দিতে প্রাণে ব্যথা পাই, হর-কোপানলে পুড়ে, যে হয়েছে ছাই, ত্ৰিভঙ্গেরই প্রতি অঙ্গ, রয়েছে অনঙ্গে বেড়া। সে রূপের তুলনা কি শশধরে হয়, যে শশী, সকল দিনে সমান না রয় সকল পক্ষে সম ভাবে, কালাচাদের আলো বাড়া। বাঙ্গালীর গান । খাগাজ-আড়াঠেকা । নিশি গেল কলে-শশী কোথা হ’লে৷ সমুদিত। দুঃখেতে রহিল মন, কুমুদী হ’লে মুদিত ॥ আপন শীতল করে, সকলে শীতল করে, সুধা মাখা নাম ধরে, জগতে বিদিত। কি দোষের উদ্দেশে, আমার এ দেশে হ’লো বঞ্চিত ! শশধর না আসাতে, চারি দিকৃ, কু আশাতে, দারুণ ও স্বীকার দশাতে হ’লো ব্যাপিত । শেষে মজিলাম বুঝি না বুঝিয়ে হিতাহিত ॥ বেহাগ – একতালা । সখি আমায় ধর ধর । উরু-নিতম্ব-সৃদি-পয়েবের ভরে ভূমেতে ঢলিয়া পড়ি । ছিলাম অষ্ঠ মনে, বেণু-বুব শুনে, কেন বা ধাইয়ে আইলাম কননে ; উছ মরি মরি বাজিছে চরণে,নব নব কুশাঙ্কুর | খোরা তিমির রজনী সজনি, কোথায় না জানি শুম-গুণমণি, পৃষ্ঠে দুলিছে লম্বিত বেণী, কাল হইল মোর ॥ চাতকিনী যেমন ধায় বারি পানে, তেমতি আমি ফিরি বনে বনে, শ্রাম জল-ধরে না হেরে নয়নে, প্রাণ হ'তেছে অস্থির ॥ মদন তাড়ন করে ঘন বন, তাহে চমকিত চরণ জঘন, খসিয়া পড়িছে কটির বসন, তাম প্রেম ভরে ; যৌবন-মদ, নারীর বিপদ, প্রেমের পুলকে হ’য়ে গদ গদ, ইহারি কারণে নাহি লে পদ,গতি হইল মন্থর। বেহাগ-ঠেকা । সখি ! করি কি উপায় । বাজয়ে মোহন বঁাশী গুম ঘটালে কি দায়ু ॥ একে ত ঘোর যামিনী, তাহে সব কুল-কামিনী, লোক-ভয় মনে মানি, না দেখি উপায় ॥