পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪০০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভৈরবী—তিওট । তাতে কি হয়েছে এত মান । ভাগ বাস বলে আমি করেছিলাম অভিমান ॥ হলে অনুগত, দোষ করে কত, তারে অনুচিত অপমান ॥ ললিত—মধ্যমান । নগর যাও হে সেই ভবন, যে তব মনোরঞ্জন । রোদনে গিয়েছে আমার যে ছিল নয়ন-অঞ্জন ॥ আমার যে প্রয়োজন, যে তোমার প্রিয়জন, হয়েছে, করে হরণ, ভানুর প্রকাশে ; আমার নিবাসে এসেছ দিতে গঞ্জন ॥ रु [e)| फु|-Nपेोभ म । নলিনী ললিত হযে মন ভরে । একি অপরূপ রূপ মৃণাল কমলে|পরে ॥ অধোবদনেতে বসি, কেশমেঘাচ্ছন্ন শণী, কেবল হয়ে সঙ্গল তার বরিষণ কলে ॥ ললিত - গাড় । এত যে চঞ্চল হলে ওহে গুণমণি । বুঝি মনে পড়িয়ছে আর কোন ধনি ৷ অসায় না গেল আশ}, এ কেমন তব আস, আসিয়ে শেযনিশিতে যেতে চাও এখনি ॥ கரு.க. সরঞ্চবুদা—অডিা । এ কি কথার কথা প্রেম হয় যায়। ক্ষণে ঘারে দেখা যায়, তাহা কি ক্ষণেকে যায়, লোকের কথায় { যে জন থাকে প্রমাণ, কত কহে অপ্রমাণ, দোহারই বাড়ায় মান থাকে না কথা। দু’জন হ’লে উত্তম, প্রিয়তম সম সম, দূরে যায় মনের তম হইলে কথা। मद्रकद्रक्ष1-थांप्लl ! তুমি বল “ভালবাসি’ এ কেমন ভালবাসা — তোমার আশ্ৰিত জনে, না পুরাবে মন আশ ॥ দেখ কত দূরে ঘন, চাতক হয় অধীন, করে বারি বরিষণ ঘুচায় তার পিপাসা। বাঙ্গালীর গান । 기적5- | বিচ্ছেদে বিচ্ছেদ প্রাণ, এ তে অনুচিত নয়। যে দিয়াছে মন, তার কি কখন হয় মরণের ভয় ॥ তবে যে প্রাণধারণ, প্রিয়জন প্রয়োজন, মিলন হবার আশয় । উভয়েরই মন থাকিলে কখন বৃথা কি खीदन् श्रlन ॥ পাহাড়ী — মধ্যমান । জানিরে তোমারে জানি, তুমিত জনন জানি । সে কথা কহিলে পরে পাছে হয় জানাঙ্গনি । যেইভাবে প্রিয়তম, তার প্রতি তত তম, কিসে হবে মম সম, যম সম যে আপনি ৷ মোহিনী—অভূ । চাহিয়ে চাদের পানে তেবে হয় মনে । তুল ন হইলে দোহে তুলন। হ'বে কেমনে । যদি সমতুল করি নয়নে নয়নে, মুগাঙ্গ হইয়ে শণী লুকাযু তপ সদন ॥ cના કે નો–થાgl ভ্রমর আর কেন ভ্ৰমেতে কর ভ্রমণ । কেতকী চাতকী জান এত কি সে কি অধীন ॥ যে তোমার প্রিয়কর, তার প্রিয় দিবাকর, তবে কেন বৃথা কর, পরধনে আরাধন ॥ সাহানা—আiড়া । যতনে যত যন্ত্রণ এ যাতন কব কায় । পীরিতি কুরীতি অতি হইল বিষম দায় ॥ যদি করি অভিমান, তার উপজয়ে মন, মানাইতে তার মান, আপনার মান যায়। যুজনে মিলন হয়, উভয়েরই থাকে ভয়, অকিঞ্চন অতিশয়, যাতে প্রেমধন রয়। একের হয় অধিক, আনে নাই ততোধিক, লোকে বলে ধিক্ ধিকৃ, কালি দহে প্রাণ তায় ॥ ুিঝিট--তিওট । এই ত পীরিতি-রীতি হুইল দে হতে, যেমন দর্পণে মুখ পাওত দেখিতে ॥