পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোবিন্দ অধিকারী। একজন সাধুর মূৰ্ত্তি ধরে, দহ বৃত্তি করে হরে, হার করিলাম দৃষ্ট। অঙ্কুর নামেতে, ক্রুর নাই তা হতে, ব্রজেতে পাপিষ্ঠ হয়ে প্রবিষ্ট । রজনী প্রভাতে, মথুরার পথে, তুলিছে পারথে শ্রীরামকৃষ্ণ । চুলে কালশশী, বলে আসি আসি, ব্ৰজবাসী কেউ বলে না তিষ্ঠ । নন্দ যশোমতি, আনন্দ সমিতি, অসম্মতি কায় নাহিক স্পষ্ট ॥ ாமம்_. জয়জয়ন্তী—একতালা। শ্রীরাধা গোবিন্দ, শ্রীচরণারবিন্দ, মকরন্দ পান কর মন-ভূঙ্গ । বিষয়-কেতকী, কাননে ভ্রম কি, সেই বনে ভ্ৰম—যে বনে ত্রিভঙ্গ ॥ বৃন্দাবন-প্রেম সরোবরমধ্য, অনস্তরূপিণী কোটি গোপপদ্ম, পদ্মমধ্যে নীলপদ্ম রাধাপদ্ম, ব্ৰহ্মাও গাথা র্যার মৃণালসঙ্গ । ব্রজের মধুর কৃষ্ণ মধুর মুরুতি, মধুর শ্রীমতি বামে বিহরতি, রাধ রতি মতি, ঐ মধুর ভাব প্রতি, (মন) মধুপুরে যেন দিও না ভঙ্গ ॥ গুণ গুণ স্বরে গাও রাধাকৃষ্ণের গুণ, মধু পাবে যাবে ভবের ক্ষুধাগুন, বাড়িবে সদ্বগুণ, ত্যজিবে বিগুণ, নিগুণ গোবিন্দ গায় গুণপ্রসঙ্গ ॥ ঙিলককামোদ-ণেমূটা। বৃন্দাবন-বিলাসিনী রাই আমাদের। রাই আমাদের, রাই আমাদের, আমরা রাইয়ের, রাই আমাদের ॥ শুক বলে, আমার কৃষ্ণ মদনমোহন, শারী বলে, আমার রাধা বামে যতক্ষণ, নৈলে শুধুই মদন। শুক বলে, আমার কৃষ্ণ গিরি ধরে ছিল, \లిచ్చెనె শারী বলে, আমার রাধা শক্তি সঞ্চারিল, নৈলে পরিবে কেন ॥ শুক বলে, আমার কৃষ্ণের মাথায় ময়ূরপাধ, শারী বলে, আমার রাধর নামটা তাতে লেখা, ঐ যে যায় গো দেখা ॥ শুক বলে, আমার কুষ্ণের চুড়া বামে হেলে, শারী বলে, আমার রাধার চরণ পাবে বলে চুড়া তাইতে হেলে। শুক বলে, আমার কৃষ্ণ যশোদাজীবন, শারী বলে, আমার বুধ জীবনের জীবন নৈলে শুষ্ঠ জীবন। শুক বলে, আমার কৃষ্ণ জগংচিন্তামণি, শারী বলে, আমার রাধা প্রেম প্রদায়িনী, সে তোমার কৃষ্ণ জানি ॥ শুক বলে, আমার কৃষ্ণের বাণী করে গান শারী বলে, সত্য বটে বলে রাধার নাম, , নৈলে মিছে সে গান। শুক ধলে, আমার কৃষ্ণ জগতের গুরু, শারী বলে, আমার রাধা বাঞ্জাকল্পতরু, নৈলে কে কার গুরু ॥ শুক বলে, আমার কুষ্ণ প্রেমের ভিখারী, শারী বলে, আমার রাধা প্রেমের লহরী, প্রেমের ঢেউ কিশোরী। শুক বলে, আমার কৃষ্ণের কদমতলায় থানা। শারী বলে, আমার রাধা করে আনা-গোনা, নৈলে যেত জানা। শুক বলে, আমার কৃষ্ণ জগতের কালে, শারী বলে, আমার রাধার রূপে জগৎ আলো নৈলে আঁধার কালো ॥ শুক বলে, আমার কুষ্ণের শ্রীরাধিক দাসী, শারী বলে, সত্য বটে সাক্ষী আছে বঁাশী, নৈলে হত কাশীবাসী ॥ শুক বলে, আমার কৃষ্ণ করে বরিষণ, শারী বলে, আমার রাধা স্থগিতপবন, সে যে স্থির পবন ॥ শুক বলে, আমার কৃষ্ণ জগতের প্রাণ, শারী বলে, আমার রাধা জীবন করে দান, থাকে কি আপনি প্রাণ ॥ 2