পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মধুকনে। কোন ধনী বলে সখি, আয়ুলে দেখ সে আয়, গগন হ’তে শশী খসি পড়েছে ধরায়, i দেখেছি ত পূর্ণশশী, দেখি নাই ত কালশশী, । সুদন বলে রাশি রাশি পূর্ণশশী ঐ চরণে ॥ সিন্ধু—মধামান । আয় কুষ্ণধন আমার অঞ্চলের ধন, ‘কোলে আয় রে দুঃখিনীর প্রাণ-ধন । কৃষ্ণ তুই কি এই পাষাণ, জানিস্ নারে বুকে পাষাণ, মোদের দুঃখে গলে রে পাষণ । থাকৃতে মোদের তুই নন্দন, পায় দাড়কা করে বন্ধন, আবার তুই নাকি রে ঐনন্দের নন্দন ॥ পেয়ে তুমি যশোদা মায়, ভুলে গেছ মায়, মায় পাসরি আসতে নার দেখিতে আমায়— কিঞ্চিং নবনীর তরে, বেঁধেছিল যুগল করে, সেই দুঃখেতে মরি ওরে, দিত নাকি গোচরণে, , ধেনুর সনে বনে বনে, তাতে কত পেয়েছিস্ বেদন। I ডুবেছিলি কালদহে, শুনে প্রাণ দহে, বেড়েছিল দাবনলে, আর এত কি সহে, স্বদন বলে ও দেবকী, আর পরিচয় দিব বা কি, যে মুখেতে ছিলেন নারায়ণ ॥ পরজ –টিমে-কাওয়ালী । প্রাণ দিতে চাও আমায়। ( প্যারী ত বেঁধেছে হৃদয়, ) তবে যে দেও ঘরে তারে কথায় কথায় ॥ প্রাণদান গ্রহণ করি, পতিত হয়েছেন প্যারী, ৭ে কেন দিবে ফিরি, হরি হে তোমায় । প্রাণ হতে চরণ ভাল জানি গুণকারী, প্রাণ দিয়ে প্রাণে মার শুনেছি হরি, পায়ে পাষাণ মানব হলো, প্রাণ লয়ে পিতার প্রাণ গেলে, সীতা বনবাসী হলো কাষ্ঠের তরী স্বর্ণ পায় ॥ ইদানী রাই বিনোদিনী রাজনন্দিনী, প্রাণদান গ্রহণ করে হয় কাঙ্গালিনী, \985 চরণ দেও চরণে ধরি, অস্তে মম প্রাণ হরি, রেখে রাঙ্গা পায় ॥ সুরট-মল্লার—ভেতালা । দেখ শ্রামের প্রেমে কেবা ন৷ মজেছে সখি এই গোকুলে। সবার হয় আনন্দ, হেরে ওই গোবিন্দ, কলঙ্ক হয় কেবল আমার কপালে ৷ দেখ এ বিশ্বমণ্ডলে, যে না হরি বলে, যে লা বলে সে জন বিহ্বল, নারদ আদি ঋষি, যে পদ আশ্বাসী, দিবানিশি তারা বলে হরি বল, আমি যদি বলি হরি, ননদী কয় কিশোরী, অমনি সরি কি ন সরি, ভয়ে মরি আজ না জানি কি বলে । দেখ গয়াসুর শিরে যে চরণ ধরে, বিশেষ পিণ্ডদানে ভবের তরণী, যে পাদপদ্ম হতে গঙ্গ| অবতীর্ণ, হয়েছেন তিনি ত্রিলোকতারিণী, আমার ভাগ্যে এই হলো, কুল বাড়াতে দুকুল গেল, সুদন বলে আর কি বল, কপালের কপালে এমনি কি ফলে ॥ মঙ্গলবিভাস - তিওট । আমি করে কি বলি কি বলে । সকলে আমীরে বলে, আমার কে বলে ॥ বল্পে কৃষ্ণ কথা, বলে বুষ্ণের কথা, ভয়ে কইনে কথা, পাছে কি বলে। যদি যাই গো নদী, পিছে ননদী, আর যত বধূ করে গে৷ গতি, শুনিলে বংশীর ধ্বনি, যত কুলধনী, সবে করে কাণাকণি ঐ কথা বলে, একবার বলি বলি আবার বলিনে, বল্পে বা কি বলে ভয়ে বলিনে, বলিব যাহার বলে, সে লাশীতে বলে, সুদন হেসে বলে বলুক ধে বলে। ரக