পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৪১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মধুকান | মঙ্গল-বিভাস—কাওয়ালী । ণে একবার হরি বল, হরি ভবের কাণ্ডারী, হরি বোলে পারে চল । | }ণায় বল হরিধ্বনি, শমন পালাবে আপনি, চালনিবারণ চিন্তামণি, প্ৰহলাদ হরি বলেছিলে এনেছি পুরাণে বলে, হরিনামের গুণে মোক্ষফলে অজামিল তরিল হেলে, নারায়ণ বলেছিল। সুদন বলৈ কি করিলাম,মিছে মায়ায় বন্দি হলাম, ( এখন ) গুরুপদ না ভঙ্গিলম 5F1 IS '5 || দেওগিরি ঢিমে-কাওয়ালী । আহুত এসেছি মোরা বরাহুত কও করে। আবাহন করেছে রাজা তাই এসেছি তোদের দ্বারে। যদি যেতে দেওরে বাধা ধর এই দেখওনে বাধ, হেরলে আর মানূলে না বাধা, আসবে বাধা মাথায় করে। আমরা ত নই অত্র মানী, তোদের রাজার পত্রে জানি, জনৃনে পারি, শুনতে পারি, আগে হৌকূ রে জানা জানি, তোদের রাজা যে যদুরায়, তায় রাধার নফর গোকুলে কয়, কৰ্ত্তে চাও কাঙ্গালি বিদায় স্বারি গোকুল তোরা চিনি নারে। তোদের রাজার নীলমণি নাম, ছিল মোদের বুন্দাবনে, পয়ে আমরা সকল ধেনু চরাইত বনে বনে, স্থান বলে শুন দারি, কূেন কর তেরিমেরি, তোদের রাজার লালন মেরি, একবার এনে দেখাও দ্বারে | দেগিওরি~~টিমে তেতাল।। পাষাণ চাপা মায়ের বুকে,স্বচক্ষেতে দেখে গেলে, ত দ্বারী করে বন্ধন, তত ডাকি আয় কৃষ্ণধন, মনে নাই দুখিনীর বেদন, হয়ে যশোদার ছেলে। জনকের যন্ত্রণ বল শুনে হবে মুখজনক, S8? পাসরি রয়েছ জনক, গে কুলে পেয়েছ জনক, ঐ দেখ দাড়য়ে পায়ে, আরও প্রহর পারে না রে, দিনাস্তে না খেতে পেয়ে বঁাচে কেবল কৃষ্ণ বলে । বল তারে ভাল করে, গিয়াছে খুল ভাল করে, মাত পিতা হত্য পাতক কিছুই না মনে করে ! স্থদন বলে, ও দেবর্কি, ও কথা আর বলব কি ; চিরকাল ত এমনি দেখি,পাতকী তোমার ছেলে । ঝিঝিট-ঠেকা । १८क ज़्तन মোহিনী বিদেশিনী। - কে নারী চিনিতে নারি,নারী হেরে ভোলে নারী, আহা । মরি কি মাধুরী, যেন এ নারী সৌদামিনী। মরি মরি কি লবণ্যে, যেন রাজকণ্ঠে, কি জন্তে এসেছে হেথায় দেখি মনঃ-মু:ে , তরুণ নবযৌবনী, ভাব যেন বিবেকিনী। মলিন চাদবদন যেন নতন প্রণয়ে বিরহিণী। এ রমুণী যার রমণী, সে যে শিরোমণি, কি জন্তে ত্যজেছেন তারে, কি ত্যজেছেন তিনি, কি জান কি রসাভ ষে, সদা নয়ন জলে ভাসে, জ্ঞান হয় আভাসে, যেন রতন হার কাঙ্গালিনী । এলোবেশে এলে কে সে, তোরা কি পারিস্ চিন্তে, হেরিয়ে জুড়াল আঁখি দূরে গেল চিন্তে । যায় হেরে ধায় ভবচিন্তে, তার যে দেখি ভাবাচস্তে, স্তদন বলে তাইতে চিন্তে, হারায়েছেন চিস্তামণি ॥ বিত্তাল-ঠেস-কাওয়ালী। শুীম-শুক নামে প্রিয়-পাখী, এ দেশে এসেছে উড়ে, ঐরাধারে দিয়ে ফকি । এসেছি তার অন্বেষণে, দেখা হলে বঁচি প্রাণে, জানে না সে রাই নাম বিনে, রাই নামেতে সদা সুখী ॥ পাখা যদি দিত বিধি, পার্থী হয়ে উড়ে যেতম,