পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


تناولها শুনিয়ে রূপলাবণ্য, কেন হও মনেতে ক্ষুণ্ণ, মন-আশা হবে পুর্ণ, ও ঋদুমণি,— পণ করে তো বসে আছে সে ধনী,— ৰিচারে যবে হারাবে, দুহাতে এক হয়ে যাবে, আইবুড়ে নামটি খণ্ডবে, কেন ভাবনা কর। चाक्लएपंमग्ने । কি কথ। আমায় শুনালে। বিষে জর জেন্তে মরা, তাই যেন আমায় করিলে না শুনিয়ে বরং ছিলাম প্রাণে ভাল, শ্রবণে আগুণ দ্বিগুণ জ্বলিল, প্রাণ গেল গেল, কি করি গো বল, শুনায়ে সে রূপ মন ভুলালে। আড়খেমটা । যাতুমণি, ধৈর্য্য ধর। এই তো কলির সন্ধ্যা বেল, ভোর না হতে হও অধর ॥ প্রেম কি পদার্থ কেবা চেনে বল, যত সুধা তত তাতে রে গরল, ফলানোর গুণে ফলে ফলাফল, কতু মোক্ষ-ফল , সুফলধর। এক প্রেমে দেখ শ্ৰীহরি সন্ন্যাসী, আর এক প্রেক্স দেখ ধ্রুব রে তপস্বী, হয়ে বনবাসী, হলো স্বৰ্গবাসী, আর দেখ শিব গঙ্গাধর । আড়ধেমট11 মাসি, ধন্ত গো তোমারে। বলিহারি তোমার ব্যবহারে। গাছে তুলে মই কেড়ে নেও আচক ফেলে, ওগো মান্সি, আচক ফেল আতাস্তরে ॥ রস দিয়ে গো রসে ফেলে, শেষে খোলা চটি. দিলে, চটয়ে দিলে, নাবিয়ে নিলে, আগুণ জেলে, -ை জেলে মোর অন্তরে ॥ | বাঙ্গালীয় গান। এখন বল সবুর কর, হিত করা কি এমুনি তর, খরতর তীক্ষত্তর, তীর প্রহার, ওগো মাসি,—তীর প্রহার মোর অস্তরে ॥ আড়ধেমূট। যাদু, কথায় কি কাজ করে। যেমন যাদুকরে যাদু করে ॥ গাছে কাঠাল গোপেতে তেল, তাতে কি আশা পোরে ॥ কাজে যখন হবার হবে, স্বচক্ষে তা দেখতে পাবে, মনোসাধে সাধ মিটাবে, প্রাণ জুড়াবে, সুখে রবে প্রেম-সাগরে ॥ কাওয়ালী । ওগো মাসি, কি হবে বল বল দেখি । উডু উডু করে প্রাণ, না হেরে সে শশিমুখী ॥ তোমা বিনে কেবা পারে, নে যেতে অকুল পারে, সদা প্রাণ কেমন করে, না হেরে তারে,— যদ্যপি বাচাও এবে, তবেই মাসি প্রাণ রবে, নতুবা এ প্রাণ যাবে, মুদিয়ে দুট আঁখি। কাওয়ালী । আজ আমি, মালঞ্চে যাই যাদুমণি। না পেলে ফুল, বাদাবে তুল, সে রাজনন্দিনী। তোমার মুখের ভরা, ভাসিবে রে অতি ত্বর, হয়োন রে সকাতর, মন মনেতে,— সুখতরী আরোহিয়ে, তাহাতে নাবিক হুয়ে, ধিকি ধিক যাবে বেয়ে, লয়ে তরণী ॥ আড়খেমটা । আজি কেন মালঞ্চে যেতে উদাস করে মন । কোন অঁাটকুড় বাদ সেধেছে, তাই করে এমন ॥ একাকিনী পেয়ে মোরে, নিত্য যে ফুল নে যায় চোরে, ছলে কয়ে গায়ের জোরে কে করে বারণ ॥ यांढ़प्पयाँ 1 ।। মালঞ্চের ফুল কে করে চুরি। কিছু বুঝতে নারি।