পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোপাল উড়ে । পারবে কিনা বল খুলে, না হয় যাইব চলে, মজবো না আর নারীর জুলে,নাকে খত আমার। কাওয়ালী। ওরে যাচু, আশার আশ্বাসে লোক বঁচে । সাধিলে হইবে সিদ্ধ এ কথা নয় মিছে। ঢেউ দেখে ছাড়িবে হল, আজি না হয় হবে কাল, হাল ধরে চালাও তরি, ঠেকৃবে কিনারায় ;– প্রেম-সাগরের উজান ভাটি, তুমি তো সব জান খাটি, জেনে শুনে পরিপাটী, মাটী কর পাছে। কাওয়ালী। যাতুমণি, আমা হতে তো তা হলো না। করো করে উপায় করে, করে মন্ত্রণ৷ ফুল ফুটেছে উচু ডালে,পাবে কিরে হাত বাড়লে, ভ্রমর হয়ে উড়ে গিয়ে বসে আপনি,— হায়, তায় পাবে মধু ও যাদুমণি,— এমন বা কার সাধ্য আছে, প্রাণ দিতে উঠিবে গাছে, কি ঘটনা ঘটে পাছে ভেবে দেখ না ৷ আড়ধেমূটা। ধাই,আমা হতে তা হ’ল না। গুণমণি আমার কিছু বল না। অপার বাসন, মনে করে না, বুঝেও বোঝ না, নিষেধ মান না, সে যে প্রেমের পথে কোন মতে এলো না । সেধে সেধে বিধিমতে, করে ধীরে বিনয়েতে, মাররে নরিলাম ভুলাতে,— সে যে ভোলবার নয়, কঠিন অতিশয়, তাইতে করি ভর, মনের সন্ধ গেল না। কালেংড়া—একতাল। মার্সি, এমন কথাকেন বললে। আকাশের চাদ হাতে দিয়ে, নিৰ্ব্বাণ আগুন জ্বাললে। צ שס\ হবে না তা জানি ভাল, দৌড়খানা জানা গেল, মুখে গৌর গৌর বল, গোঁর এই দশা কি করলে। আশা দিয়ে মন ভুলালে, আকাশের চাদ হতে দ্বিলে, অবশেষে এই করিলে, আমার দফা সাৰ্বলে। c5को । নম নম নম মাতা নম চণ্ডি নারায়ণি । ত্রিতাপহারিণি তার কালভয় নিবারিণি ॥ ধারে দাও মা অভয়পদ, তার কি আর রহে বিপদ, বিপদে সে পায় সম্পদ, পদে পদে গো জননি। মাত, তোমারি প্রসাদে, যাই যেন নিৰ্ব্বিবাদে, কি হবে লোক-অপবাদে,ঐ পদ বিনে না জানি ॥ আড়ধেমূটাW কায় কব মনের কথা, মনোব্যথা মনই জানে। অবল সরলা বালা, কতই জ্বলা সয় গো প্রাণে ॥ বিষম প্রতিজ্ঞা করি, অস্তরে গুমরে মরি, লাজে প্রকাশিতে মারি, দিবনিশি যায় রোদমে ॥ আড়খেম্টা। সখি, আর ভাল লাগে মা। আমার বাসেতে আর মন বসে মা । এ নীল কাপড় হামছে কামড়, ওলো সখি, অলঙ্কার অঙ্গে সহেন। কোকিল সদা হুঙ্কারে, ভ্রমর তাহে ঝঙ্কারে, কানে যেন তীর প্রহারে তায় না হেরে, ও বিরহে প্রাণ বঁাচে না। , ? কাওয়ালী । পার যদি যৌবন-মস্কটে বাঁচতে । তবে ঐ জনমের মত বাধা বুব প্রেমেতে ॥ সদা হাদয় গুর গুর করে, ধৈর্য্য না ধরে, মরি মরি সহচর, বিরহ-জয়ে, আজ কাল ক'রে বয়স গেল,— যায় বাৰে ধন-মান কুল-শীল রাখিতে