পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোপাল উড়ে। \OPV) জাড়খেম্টা। সখি তার কেন পণ করা । যে জন লজ্জা ভয়ে জেন্তে মরা। আহা মরি কি চমৎকার, তার সনে কি করবো বিচার, দেখে বাকু সরে না আমার, বলবো কি আর,-- এর বাড়া কি আছে হারা। ' নাজানি গে| কি প্রকারে, জিনিল সব রাজকুমারে, সহজে যে আপনি হারে ভয় কি তারে, সে তো আপনা হতে আছে ধরা। আড়খেম্টা। দেশের এমি বিচার বটে। চোর হয়ে চোর ধরতে ছোটে। এমুনি দেশের উণ্ট দাড়া, নিজে চুরি করে যার, সাধুরে চোর বলে তারা, পেলে সাড়, বিপদ ঘটায় যাতে ঘটে । க আড়খেমটা । সখি, বল দেখি গো তোরা। দেখি তোদের কেমন সালিস্ করা। কোন লাজে চোর কন গো মোরে, কটাক্ষে যে মন হরে, আপনার ধন নিব জেরে, ধরে চোরে, উন্টে আবার আমায় ধরা। चांझरथंब01 ।। মিছে কেন বিবাদ করা, কুলের কর কুল-কিনারা, মানে মানে মান ফিরে দাও, মন ফিরে দাও, মনোচোরা। কুল-শীল সব তোমার হাতে, প্রাণ সঁপেছি শীলতাতে, নতুবা তোমার বাড়ীতে, শিল কোরে বিল করবে। মোরা। কাওয়ালী। আছ কি চিন্তায় মগন, কি চিত্তে, কি বাসন, অচিন্তাকে চিন্তা করে, স্বচিস্তাকে দিয়ে দূরে, প্রেয়সি, তোমায় ঢ়িন্তে পারা গেল না। बाड्'ि-'ंौ । অধরে অঞ্চল ঝাপিয়ে, আজ কেন হে প্রিয়ে; আঁখি-রবি প্রকাশিত, মুখ-কমল মুদিত, শণী যেন রাহুগ্ৰস্ত, আছ বসিয়ে। ক্ষুধিত চকোরে, বঞ্চণা করে, আছ ধনি, মান-ভরে সুধা নাহি বরধিয়ে। কাওয়ালী। কলম্বেতে ভয় করে না বিধুমুখি ! যে যা বলে, সয়ে থেকে,হয়ে আমার দুখের তুর্থী মাতঙ্গ পড়িলে দলে, পতঙ্গেতে কি না বলে, কণ্টকেরি বনে গেলে, কঁটি ফোটে পায়,— তা বলে কি ফাঁকে ফাকে পা বাড়ান যায়— ডুবেছি নাডুৰতে আছি, পাতাল কতরে বেধি কাওয়ংলী। গা তোলরে নিশি অবসান। (প্রাণ ) বাশবনে ডাকে কাক, মালি কাটে কপিশাক, গাধার পিটে কাপড় দিয়ে রজক বায় বাগান । আজিকার মত আসি, উঠে ওলো প্রাণ-প্রেরসি! স্ব-স্থানেতে গেল শশী, জাগিল সব প্রতিবাসী, বিধুমুখে মধুর হাসি, কোকিল করে গান। আড়ধেমূট। এখনো রজনী আছে, বল কোথা ঘাবে রে প্রাণ যদি নিশি পোহাইত, কোকিলে ঝঙ্কার দিত, কুমুদী মুদিত হত, শলী বেণ্ড নিজ স্থান। কাওয়ালী । ঐ পোহাল রূপসি-নিশি। মন-দুঃখ রৈল মনে বিদায় দাও এক্ষণে আসি। চোরে চোরে কুটুম্বিতে আসাযাওয়া রেতে রেতে, রাত পোল ফল হলে, ফুরিয়ে গেল হাসিখুলি