পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫০৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রূপচাঁদ পক্ষী। . 89\ ל ত্ৰিভঙ্গ ভঙ্গিম ঠামে, শিরে চুড়া টেড়া বামে, বিহরই ব্রজধামে, রাধাপ্রেমে শ্যামরায় । খগ অনুরাগ ক্রমে, হৃদয় নিকুঞ্জ ধাম, বাইকে রাখি শুামের বামে,অস্তিমে দেখিতে চায়। ইমন-দিগ্নিট—কাওয়ালী। ভব-পার কর্ণধার, তুমি ত আপনি ॥ যমুনায় কাণ্ডার, হরি হইয় ক্ষেপণী ॥ এ যমুনা ক্ষুদ নদী পার কর ভব জলধি তুমি অনাদির আদি, পুরাণেতে শুনি। অবলা গোপের নারী তহে হরি জীর্ণ তরী তরঙ্গের আতঙ্কে মরি, রক্ষ চক্রপাণি ॥ ( এদায়ে) পড়ে এই ভব-নীরে যে ডাকে প্রভু তোমারে; ভবপরে দাও তারে চরণ-তরুণী । ( যুগল ) যমুনার দেখে তরঙ্গ কঁপিছে গোপিনী অঙ্গ, কৃপা কর হে ত্রিভঙ্গ, কহে খগমণি ॥ বিভাস-কাওয়ালী । কৈ বনবানী, এ যে কলা, ( বনে)। রাধে সাধে, শ্রামাপদে, দি, পুষ্পাঞ্জলি ৷ তরুণ অরুণ যেন, শ্ৰীপদ শোভাকর, চরণ-সরোঙ্গে সঙ্গে মণিময় নপুর, অনুমানি ত্রিনয়নীর পদতলে শঙ্কর, শ্ৰীঅঙ্গ দিছে ঢলি । ক্ষীণ কটি তাহে আঁটি, নর কর কিঙ্গিনী, শবাসনা, বিবসনা, নবন্ধন-বরণী, চতুৰ্ভুজ দনুজ নির্মুলকারিণী, শিবরাণী নৃপগুমালী। করে আসি মুক্তকেশী, অট্টহাসি বদনে, মনোলোভা কিবা শোভা, জিহবা চাপি দশনে, আসব পানেতে মত্ত দৈত্য রক্ত মৰ্দ্দনে, বিশ্বপালী বিশালী। সাধী সতী শ্ৰীমতী পদসেবা করে, জনম সফল হ’ল শুমা মায়েরে হেরে, কুটিলা ত্যজিয়া ছলা, পূজ শুমা-মায়েরে, অগতি খগপতির গতি গো করালী ॥ মনোহর সাধী—একতাল।। নবীন নবীনে, নব কুঞ্জবনে, নব লীল করে বিপিনে । নব নব বাল, নবীন হিন্দোলা, নব ফুলে সাজায় যতনে ॥ নবীন নীরদে, বামে নব রাধে, মনসাধে ঝুলায় ঝুলনে। নব নব বন, নবীন গহন, নব শাখা দোলে পবনে ॥ নব নব পিক, সরোবরে বক, ডছক ডাইকী গগনে । নব নব শারী, ময়ূর মথুী নাচে পুচ্ছ ধরি স্বগণে ॥ নুরি কাকাতুয়, মনিয়া পাপিয়ু, মোহিত করি,ছ মুতনে। নবীন আহীর, করে করে ধরি, নাচে ঘুরি ফিরি ফুলে। নব অলঙ্কার, নব ফুলহার, নবাঙ্গ চর্চিত চন্দনে ॥ শ্ৰীপদ পঙ্কজ, হেরি অলিরাজ, মধু ভ্ৰমে বসে চরণে। পেলে পদমুধ, দূরে যাবে ক্ষুধা, তরিবে সে ভব-বন্ধনে। সদা বাঞ্ছা করি, যুগল রূপ হেরি, শয়নে স্বপন মননে ॥ হরি নাম বিনা, গোপিকা রসনা, অন্ত নাম না শুনে শ্রবণে । সদা এ দ্বিকর, কিশোরী কিশোর, থাক রে যুগল সেবনে । দীন খগপতি, করয়ে প্রণতি, শ্ৰীমতী শ্ৰীপতি চরণে ॥ গোঁড় মল্লার-কাওয়ালী। ঝুলে ঝুলে ঝুrন পর, খামল সুন্দর, যুগল কিশোর কিশোরী। হে, (ঝুলে ঝুলে বুলনি ঝুলে ) বহুেত পবন স্বম, গরজেত নবঘন, চমকেত বিজরি, বেরি বেরি ।