পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫৫৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8S8 বেহাগ-জলদ-ভেতালা । একি রূপ হেরি, আমরি মরি, অৰ্দ্ধ আভা জিনি প্রভা, প্রভাতের তমোহরি। মিলিত হিমাংশু প্রভা,শিরে কিরীটের শোভা, মৃদুহান্ত মনোলোভ, কিবা মাধুরী ॥ পাশাঙ্কুশ সব্য করে, অভয় বর অপরে, চতুষ্করে শোভ করে, ত্রিনয়ন শুভক্ষী। বিমল হৃদয়োপরি, পীনোন্নত কুচগিরি, চন্দ্র প্রতি কৃপা করি, তার গো ভুবনেশ্বরি ॥ বগেতী—জলদ তেতাল । এ কি রূপ নয়নে করি নিরীক্ষণ । কে পারে স্বরূপ রূপ করিতে বর্ণন ॥ জিনিয়ে কোটি অরুণ, অঙ্গের হেরি বরণ, বসম তরুণারুণ তাহে সুশোভন । উচ্চ পীন পয়োধর, তাহে বহে রক্তধার, মুণ্ডমালা ভয়ঙ্কর গলে বিভূষণ ॥ জপমালা এক করে, জ্ঞানমুদ্র ধরে পরে, ৰিকরে অভয় বরে, করেন ধারণ। সহ চন্দ্রকান্তমণি, মুকুট শিরোধারিণী, হে ভৈরবি ত্রিময়নি, দেহি চন্দ্রে শ্ৰীচরণ ॥ লুম ঝিঝিট-টিমে তেতালা। এ কার অঙ্গন, অম্বুদবরণ,চন্দ্রশেখরা ত্রিনয়ন ॥ রক্তবস্ত্র-পরিধান, রক্তকমঃ সিনা, দ্বিভূজ-ধারণ বরাভয়-শোভন ॥ মধুপালযুক্ত, কালমৃত্যাসক্ত, হেরি ফুর বক্ত, অনঙ্গ-অরি-অঙ্গন । অদ্যাকালী কুপালেশে, বিনাশি চন্দ্র কলুষে, মুক্তকর মায়াপাশে, দিওন যাতন ॥ ললিত—জলদতেতাল । একি রূপ চমৎকার হেরি আমরি আমরি। আল-আভা মনোলোভা প্রভাতের তমো হরি ॥ চতুর্ভূজা ত্রিণয়নী, অঙ্কুশ-ধনুৰ্দ্ধারিণী, পাশ বাণে দক্ষ পাণি, অতিশয় শোভা করি। বাঙ্গালীয় গান । খাম্বাজ—টিমেতেত{ল । একি রূপ অপরূপ করি নিরীক্ষণ—অসাধ্য বর্ণন । রূপের মাধুরী হেরি জুড়াল নয়ন ॥ মণিমণ্ডপোপরে, রত্ববেদী শোভ করে, সিংহাসন তদুপরে অতি মুগঠন। সিংহাসনে বিরাজমান, উজ্জ্বল পীতবরণ, পীতাম্বর পরিধান, তাহে সুশোভন ॥ কিবা শোভে আভরণ, পুষ্পমাল্য-বিভূষণ, সুগন্ধী অঙ্গে লেপন, কুটুম চন্দন । সব্যে শত্রুজিহব। ধরি, মুদগর দক্ষ করে করি, ক্রোধিতা হয়ে শঙ্করী করেন তাড়ন ॥ বগল করুণা করি, চনে দিয়ে চরণতরি, পার কর ভববারি, লইলাম শরণ ॥ টে\রী-ভৈরবী—টিমে-তেতাল । এ বালা কার বালা অপরূপ হেরি । তরুণ অরুণ জিনি বর্ণ প্রভাকরী ॥ অৰ্দ্ধচন্দ্র শিরোপরে, ত্রিনয়নে শোভা করে, ভূষিত নানালঙ্কারে, সিংহাসনোপরি । শোণিত বমনাস্থিত, মুণ্ডহার-বিভূষিত, দশপাণি মুশোভিত, কিবা মাধুরী। শূল ডমরু খেটক, পাশাঙ্কুশ পুস্তক, কুপাণ বাণ পিনাক, অক্ষ মালাধারি। শক্ৰচ্ছেদ স্বয়ং করি, রুদ্রভৈরবি শঙ্করি, চন্দ্র প্রতি কৃপা করি, ভব শুভঙ্করী ॥ বাহার—জলদ ভেতালা । ঐগে ঐ বাঙ্গায় বাণী, কেশব ত্রীরাধা বলিয়ে। হলো মন উচাটন, চল হরি হেরি গিয়ে ॥ কদম্বেরি তলে কালা, করিতেছে কত ছলা, মজাইতে কুলবালা, মোহন মুরলী লরে। নিকুঞ্জে নির্জনে হুরি, খেলিবারে আসে হোfর, বংশীতে সঙ্গেত করি, চন্দ্র কহে বিধি দিয়ে ॥ রায়—ঠংরী। এ কামিনী কার কামিনী,মুরতরুমূলে একাকিল। রমণীয় পারিজাত বনবিহারিণী ॥ মণিমণ্ডপোপরে, রত্নসিংহাসমাধারে, প্রফুল্প-পঙ্কজান্তরে, ষটকোণৰ্বাসিনী।