পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


svo दांत्रालौब्र भांन। খালী-মিশ্র-একতাল।। নদী ও সময়, সমান উভয়, ধীরে ধীরে বয়, লয়ে সমুদয় । সচেষ্ট সুজন লভয়ে রতন, জড় অভাজন, দুঃখভাগী হয়। ক্রমাগত ধায়, পিছে না তাকায়, হাসায় কাদায়, যথা মনে লয়, অনন্ত সাগরে, মিশে গেলে পরে, কিছুতেই আর, আসে না ত ফিরে, হ’লে অযতন, জন্মের মতন, আরতে কখন, পাবে না বিজয় ॥ ভজন—কাহাৰ্ব্ব । ইস্কে উস্কো বুরা ন মানে, আপুনে কে ঠিকৃ রাখে। জি। এ দুনিয়ামে সবি হ্যায় ঝুটা, একু মুঠ খাকু জি ॥ দুনিয়া দুনির কাহে মিঞা, কহ তে হো তু হরদমজি। দম ছুটেগ মাটি হোবেগ, রহেগ একৃ ওহি মৌল জি । টোড়ী-ভৈরবী—একতালা । জয় দামোদর, মধু-মুর-হর, গুম নটবর, বিপিন-বিহারী। ভকত-পালক, অসুর-নাশক, দরিদ্র-পোষক, সৰ্ব্ব-দপ-হারী ॥ দুরিত-দমন, কলুষ-নাশন, তাপিত-তোষণ, অকুল-কাণ্ডারী। বিজয় কাতরে, ডাকে হে তোমারে, ভবপারাবারে, তরাও শ্ৰীহরি। গৌরী-একতালা । মা বলে তোরে ডাকিলে জুড়াবে এ পোড়া মন। মা-হীনের বড় সাধ করিতে মা সম্বোধন ॥ মা-স্নেহ-বিশ্ব-বাঞ্ছিত, বিজয় তাহে বঞ্চিত, সম্বল কেবল তাত, তিনি যেন সুখে রন। সুশীতল তার প্রেমে, জুড়াই এ মরুভূমে, লে ভাৰতত তিনি জেলেনে জীবন। জগদম্বে কৃপা-খনি, তুমি বিনা কে জননি, মাতৃহীন অভাগার, ঘুচাবে মনোবেদন। লুম-ঝিঝিট-পোস্তা। দুঃখ সুখ ভিন্ন ভাবি দুঃখ পাই অকারণ। একেরই দুই দিকে দুটা নাম সংযোজন। আজি যাহা মুখকর, তাই কিছু দিনান্তর, বোধ হয় বিষময়, ইহা দেখি অনুক্ষণ ॥ তুমি যারে তপ্ত বল, অন্তে ভাবে সুশীতল, সুখ দুঃখ অবিকল, এইরূপ বিবেচন । মুখ বলে যারে মনি, সেই আনে দুঃখ টানি, বোধ-স্থত্রে দুই ধারে, চুটীর আছে বন্ধন। মুখ প্রতি অনুরাগী, বিচলিত দুঃখ লাগি, কল্পনায় কষ্ট্রভাণী, এ নিখিল জীবগণ । যে মুখ কামনা করে, ধ্রুব দুঃখ পায় পরে, চক্রাকারে বারে বারে, সুখ দুঃখের ভ্রমণ । সাধুগণ সে অকারণে, মুখে দুঃখে স্থির মনে, ভবেন মধুসূদনে, বিচলিত কভু নন। না চাহি স্বরগবাস, পদে রাখ শ্ৰীনিবাস, বিজয়ের অভিলাষ, হরিহে কর পূরণ ॥ বসন্তৰাহার—একতালা । হেরি বসন্ত-সখায়, কোকিল হরধে গায়। তরুগণ শোভা পায়, শীত ভয়ে পলাইল । দশ দিকু আমোদিত, ত্ৰিভুবন হরষিত, ফুলকুল বিকশিত, অলিদলে মাতাইল । স্বভাবের শোভা দেখি, জুড়ায় সবার আঁখি, বিজয় হইয়া সুখী, বিধাতারে প্রণমিল। সাহান-ঝাঁপতাল । হেরি নিদাখে আতঙ্কে মধু করে পলায়ন। প্রখর হ’ল তপন বহে তপ্ত সমীরণ ॥ ধরা অবসন্ন ভয়ে, তটিনী যায় মুখায়ে, লতিকা পড়ে লুটায়ে; অনল সম পবন। তরুকুল স্পন্দহীন, বিষ সবে সুদান, মেদিনী-মুখ মলিন, আকুল মানব-মন ৷